ঢাকা রোববার, ০৭ আগস্ট ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

সিইসির আশাবাদ : সব দলের মধ্যে ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত হবে

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ১৮:৫১, ৩ জুলাই ২০২২

আপডেট: ২০:৪৮, ৩ জুলাই ২০২২

সিইসির আশাবাদ : সব দলের মধ্যে ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত হবে

আগামী জাতীয় নির্বাচনের আগেই দেশের সব রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে ‘ঐকমত্য’ প্রতিষ্ঠিত হওয়ার আশা ব্যক্ত করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল। 

তিনি বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচন ঘিরে দেশের রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে দূরত্ব ঘোচাতে নির্বাচন কমিশন (ইসি) চেষ্টা চালিয়ে যাবে। আশা করছি, সব দলের মধ্যে ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) হাইকমিশনের নেতৃত্বে অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কো-অপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টভুক্ত (ওইসিডি) দেশগুলোর কূটনীতিকদের প্রতিনিধিদলের সঙ্গে রোববার (৩  জুলাই) বৈঠকশেষে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন সিইসি।

তিনি বলেন, এখনো কিছু কিছু রাজনৈতিক দল নির্বাচনে অংশ না নেয়ার ঘোষণা দিচ্ছে। তবে চেষ্টা করে যাব, যেন সব দলের মধ্যে ঐকমত্য প্রতিষ্ঠিত হয়। যেন একটা অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হয়।

বিদেশি প্রতিনিধিদলের সঙ্গে আলাপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কূটনীতিকরা রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে দূরত্ব ঘোচানোর ব্যাপারে আশাবাদী। তারা এসেছেন, এটা একটা ট্রেডিশন। আগেও এসেছেন, এরই ধারাবাহিকতা। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আইনকানুন, আমাদের প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন। আমরা আমাদের কার্যক্রমগুলো জানিয়েছি। উনারা সাধারণত গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের ওপর জোর দিয়ে থাকেন। সেজন্যই নির্বাচনটা ইনক্লুসিভ, অ্যাক্‌সেপ্টেবল, ফ্রি এবং ফেয়ার হলে উনারাও খুশি হবেন, পুরো দেশবাসী খুশি হবে।

আগামী নির্বাচন ঘিরে যা যা করণীয় ইসি করবে উল্লেখ করে সিইসি বলেন, উনারা (বিদেশি কূটনীতিকরা) কমিশনের প্রস্তুতি বিষয়ে প্লিজড (খুশি)। ভবিষ্যতেও প্রয়োজনে যে কোনো সময় তাদের আসতে বলেছি।

তিনি আরো বলেন, উনারা সহযোগিতার কথা বলেছেন। আমরা বলেছি, সহযোগিতা লাগবে কি না সেটা আমরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করে দেখব। কোনো টেকনিক্যাল অ্যাসিস্ট্যান্স যদি প্রয়োজন হয়, তাহলে আমরা উনাদের জানাব। 

কূটনীতিকরা পর্যবেক্ষকের কথা বলেছেন জানিয়ে হাবিবুল আউয়াল বলেন, আমরা বলেছি, এদিক থেকে কোনো বাধা নেই। তবে এ বিষয়ে ডিপ্লোমেটিক্যালি আলোচনা করে দেখতে পারেন। নির্বাচনকালীন বিদেশি পর্ববেক্ষকদের বিষয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে কথা বলতে বলেছি প্রতিনিধিদলকে।

এর আগে বিকাল ৩টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে বৈঠক শুরু হয়। প্রতিনিধিদলে উপস্থিত ছিলেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট চ্যাটারটন ডিকসন, যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাস, কানাডার হাইকমিশনার লিলি নিকোলস, ডেনমার্কের রাষ্ট্রদূত উ ইনি ইস্ট্রুপ পিটারসেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইটলি, ফ্রান্সের সহকারী রাষ্ট্রদূত গুইলাম অড্রেন ডি কেরড্রেল, জার্মানির রাষ্ট্রদূত আছিম ট্রস্টার, ইতালির রাষ্ট্রদূত এনরিকো নুনজিয়াটা, নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত অ্যান ভ্যান লিউয়েন, নরওয়ের রাষ্ট্রদূত এসপেন, স্পেনের রাষ্ট্রদূত ফ্রান্সিসকো ডি আসিস বেনিটেজ সালাস, সুইজারল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত নাথালি চুয়ার্ড, তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তোরান এবং জাপানের ডেপুটি হেড অব মিশন ইয়ামায়া হিরোয়ুকি৷