ঢাকা রোববার, ০৭ আগস্ট ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

মুখের ঘা কমানোর ৫ উপায়

লাইফস্টাইল ডেস্ক 

প্রকাশিত: ১৪:৩৫, ৩০ জুলাই ২০২২

মুখের ঘা কমানোর ৫ উপায়

ঠোঁটের তলায়, মুখের ভেতরে ছোট ছোট ঘা হলে খাওয়া-দাওয়া মাথায় ওঠাই দস্তুর। কিছুদিন পর নিজে থেকে সেরে গেলেও এই ধরনের ক্ষত যতদিন থাকে, ততদিনই যন্ত্রণায় কাতর থাকতে হয়। অনেকের আবার কিছুদিন পর পরই দেখা দেয় সমস্যা, সারতেও সময় লাগে। কিন্তু কেন তৈরি হয় এই ধরনের ক্ষত?

মুখের ক্ষত বা আলসারের পিছনে থাকে মূলত দু’টি কারণ। দেহের প্রয়োজনীয় কোনো উপাদানের ঘাটতি থাকলে যেমন এই ধরনের ক্ষত দেখা দিতে পারে, তেমনই বিশেষ কোনো খাবারের প্রতিক্রিয়াতেও এই সমস্যা দেখা দিতে পারে।
খাবারে ভিটামিন বি ১২, ভিটামিন সি, জিঙ্ক ও ফোলেট কম থাকলে এই সমস্যা দেখা দিতে পারে। আবার টক খাবার সহ্য না হলেও দেখা দিতে পারে এ সমস্যা। পাকস্থলীতে কিছু বিশেষ ব্যাক্টেরিয়ার সংক্রমণ দেখা দিলেও মুখগহ্বরে ক্ষত তৈরি হতে পারে।

সমাধানের ঘরোয়া উপায়-

১. নারকেল তেল: মুখে ঘা দেখা দিলে অল্প নারকেল তেল নিয়ে কুলকুচি করার পরামর্শ দেন অনেকে। এতে কমে আসে জ্বালা-যন্ত্রণা।

২. খাবার-দাবার: ভিটামিন বি ও ভিটামিন সি-সমৃদ্ধ খাবার খেতে হবে বেশি করে। দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার, মটরশুঁটি, ডাল ও পালংশাক খেতে পারেন নিয়মিত। নিয়মিত ফল খেলেও মিলতে পারে সমাধান।

৩. জিঙ্ক-সমৃদ্ধ খাবার: কাজু, সূর্যমুখীর বীজ, কুমড়োর বীজ, ওট ও বিটের মতো সব্জি খেতে পারেন, এই ধরনের খাবারে প্রচুর পরিমাণ জিঙ্ক থাকে। ফলে জিঙ্কের ঘাটতি থেকে ঘা হলে সহজেই সেরে যাবে সেই ঘা।

মনে রাখবেন, মুখের ঘা অনেক সময় গূঢ়তর কোনো সমস্যার ইঙ্গিত হতে পারে। হতে পারে ক্যানসারের লক্ষণও। বিশেষ করে যারা ধূমপান করেন কিংবা খৈনি বা তামাক খান, তাদের ক্ষেত্রে এই ঝুঁকি অনেকটাই বেশি। তাই এই ধরনের ক্ষত দেখা দিলে দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া অত্যন্ত জরুরি।