ঢাকা Tuesday, 18 June 2024

৪৬তম বিসিএসের প্রিলিতে অংশ নিলো ৩ লাখ ৩৮ হাজার পরীক্ষার্থী

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: 11:24, 26 April 2024

আপডেট: 14:55, 26 April 2024

৪৬তম বিসিএসের প্রিলিতে অংশ নিলো ৩ লাখ ৩৮ হাজার পরীক্ষার্থী

ফাইল ছবি

দেশের ৮ বিভাগীয় শহরের ২১৫ কেন্দ্রে একযোগে ৪৬তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা (এমসিকিউ) চলছে।

শুক্রবার (২৬ এপ্রিল) সকাল ১০টা থেকে ২০০ নম্বরের এই পরীক্ষা শুরু হয়েছে, যা চলবে দুপুর ১২টা পর্যন্ত। পরীক্ষা শেষ না হওয়া পর্যন্ত কেউ কেন্দ্র থেকে বের হতে পারবেন না। এবারের পরীক্ষায় অংশ নিয়েছেন ৩ লাখ ৩৮ হাজার পরীক্ষার্থী।

পিএসসির বিজ্ঞপ্তির তথ্যানুযায়ী, ৪৬তম বিসিএসে বিভিন্ন ক্যাডারে শূন্যপদের সংখ্যা ৩ হাজার ১৪০টি। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি নেওয়া হবে স্বাস্থ্য ক্যাডারে। সহকারী সার্জন ১ হাজার ৬৮২ জন, সহকারী ডেন্টাল সার্জন ১৬ জন নেওয়া হবে। এ ছাড়া সবচেয়ে বেশি নেওয়া হবে শিক্ষা ক্যাডারে। বিভিন্ন বিষয়ে এই ক্যাডার থেকে বিসিএস শিক্ষায় ৫২০ জন নেওয়া হবে। প্রশাসনে ২৭৪, পররাষ্ট্রে ১০, পুলিশে ৮০, আনসারে ১৪, মৎস্যে ২৬ ও গণপূর্তে ৬৫ জন নেওয়া হবে।

পরীক্ষার সময়সূচি অনুযায়ী- সকাল সাড়ে ৮টা থেকে পরীক্ষার্থীরা কেন্দ্রে প্রবেশ করেন। সকাল সাড়ে ৯টা পর্যন্ত প্রার্থীরা কেন্দ্রে ঢোকার সুযোগ পান। সাড়ে ৯টা থেকেই উত্তরপত্র বিতরণ শুরু হয় এবং ১০টায় প্রশ্নপত্র বিতরণ করা হয়।

এদিকে পরীক্ষা চলাকালে কেন্দ্রের ভেতরের ও বাইরের শৃঙ্খলা রক্ষার্থে ঢাকার ৯৬টি পরীক্ষা কেন্দ্রের প্রতিটির জন্য একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়েছে সরকার।

পিএসসি সচিবালয়ের কন্ট্রোল রুমে অতিরিক্ত আরও ১০ জন বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডার কর্মকর্তাকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ক্ষমতা অর্পণ করে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

বিসিএস পরীক্ষা কেন্দ্রগুলোতে সরেজমিনে দেখা যায়, পরীক্ষার্থীরা পিএসসির নির্দেশনা অনুযায়ী সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যে পরীক্ষা কেন্দ্র প্রবেশ করেছেন। সকাল সাড়ে ৯টার পর পরীক্ষা কেন্দ্রের মূল ফটক বন্ধ করে দেওয়া হয়। তবে সাড়ে ৯টার পর বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে পরীক্ষা কেন্দ্রে আসতে দেখা যায়। তাদের বিশেষ বিবেচনায় শেষ পর্যন্ত পরীক্ষার কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দেওয়া হয়।

কেন্দ্রের ভেতরে এবং বাইরে পর্যাপ্ত সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ সদস্যরা পরীক্ষার্থীদের তল্লাশি করে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দিচ্ছেন। এছাড়া কেন্দ্রের বাইরে প্রচুর সংখ্যক অভিভাবক ও পরীক্ষার্থীদের স্বজনরা ভিড় করে আছেন। সকাল থেকেই কেন্দ্রের সামনে তারা ভিড় জমিয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার পিএসসির চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, পরীক্ষা মানে পরীক্ষা, কারও কাছে দেখে শুনে বা অন্য কোনো উপায়ে পরীক্ষা দেওয়া নয়। কেউ এর ব্যত্যয় ঘটালে তার পরীক্ষা বন্ধ করে দেওয়া হবে।