ঢাকা শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

গণির কৃত্রিম পায়ের দায়িত্ব নিলেন ফুলবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২০:৪১, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২

গণির কৃত্রিম পায়ের দায়িত্ব নিলেন ফুলবাড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান

আব্দুল গণি (৩৫) চা বিক্রেতা। বাম পায়ে লোহার কাঁটা (পেরেক) বিঁধে পায়ে পচন ধরে। একপর্যায়ে পা-টি কেটে ফেলতে হয়। বন্ধ হয়ে যায় রুটি রোজগারের পথ। খবরটি জানতে পারেন ফুলবাড়ী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন। গণির কৃত্রিম পা দেয়াসহ পুনর্বাসনের দায়িত্ব নিয়েছেন তিনি।

শুক্রবার (২৩ সেপ্টম্বর) সন্ধ্যায় তিনি চা-বিক্রেতা গণিকে দেখতে গিয়ে তাকে একটি কৃত্রিম পা লাগানোর ব্যবস্থা করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। একই সাথে চা-বিক্রেতা গণি যাতে তার পূর্বের চা দোকানটি আবারও শুরু করতে পারেন সেই ব্যবস্থা করে দেয়ারও আশ্বাস দেন তিনি।

জানা যায়, পৌর শহরের মধ্য গৌরীপাড়া বারোঘোরিয়া গ্রামের মৃত আব্দুল মিয়ার ছেলে আব্দুল গণি চা-বিস্কুটের দোকান করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। এরই মাঝে তার বাম পায়ে লোহার পেরেক ঢুকে পচন সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে চিকিৎসকের পারামর্শে ওই পায়ের গোড়ালি পর্যন্ত কেটে ফেলতে হয। এরপর থেকে সে বেকার হয়ে পড়ে।

গণির পরিবারের সদস্যরা জানায়, গত এক বছর পূর্বে তার এই বাম পায়ে একটি লোহার কাঁটা (পেরেক) বিঁধে। ওই লোহার কাঁটার কারণে তার পায়ে পচন ধরে। এরপর দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে তার পা-টি কেটে ফেলতে হয়। সেই পা হারিয়ে চা-বিক্রেতা আব্দুল গণি অসহায় হয়ে পড়েন। এ খবর পেয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিল্টন আব্দুল গণিকে দেখতে এসে তার জন্য একটি কৃত্রিম পা অর্ডার দিয়ে তাকে পুনর্বাসনের ঘোষণা দেন।

আতাউর রহমান মিল্টন জানান, আব্দুল গণি একজন কর্মজীবী মানুষ। তার কর্মটি ফিরিয়ে দিলে সে নিজ কর্ম করে আবারও পরিবার-পরিজন নিয়ে সমাজে সম্মানের সাথে চলতে পারবে। এজন্য তাকে একটি কৃত্রিম পাসহ তার কর্ম শুরু করার ব্যবস্থা করেন তিনি।