ঢাকা বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

মায়ার ধৈর্য্য এবং ফিরে আসা

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ১১:২৪, ২৩ নভেম্বর ২০২১

আপডেট: ১১:৪০, ২৩ নভেম্বর ২০২১

মায়ার ধৈর্য্য এবং ফিরে আসা

আওয়ামী লীগের দুঃসময়ের নেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া। তিনি কঠিন সময়ে অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তিনি এবং মোহাম্মদ হানিফ মিলে বিএনপির সময়ে আওয়ামী লীগকে পুনর্জাগরণের ক্ষেত্রে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। একজন মাঠের কর্মী হিসেবে তাঁর পরিচিতি আছে।

অনেকে মনে করেন মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার রাজনীতিতে যে অবদান, তার যে ত্যাগ এবং যে রাজনৈতিক যোগ্যতা, তার প্রাপ্য মর্যাদা তিনি পাননি। কিন্তু মাঠের কর্মী এবং দুঃসময়ে সংগঠন গোছানোর ক্ষেত্রে মোফাজ্জল হোসেন মায়া যে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একজন রাজনীতিবিদ এটি আওয়ামী লীগ সভাপতিও মনে রেখেছেন। আর এ কারণে গত ১৯ নভেম্বর শুক্রবার আওয়ামী লীগে যে নতুন তিন জন প্রেসিডিয়ামের সদস্য করা হয়েছে তার মধ্যে মায়া অন্যতম।

মায়া একজন ভালো সংগঠক হিসেবে পরিচিত কিন্তু এই ভালো সংগঠক গত ২০১৮ সালের নির্বাচনে মনোনয়ন বঞ্চিত হয়েছেন। তার মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ার কারণে অনেকেই ভেবেছিল মায়ার অধ্যায় হয়তো রাজনীতিতে শেষ হয়ে যাবে। কিন্তু মায়া ধৈর্য ধরেছিলেন এবং রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড করেছিলেন।

ঢাকা মহানগরের কমিটি গঠনের সময় মায়াকে নিয়ে ভাবা হয়েছিল কিন্তু সেটাও মায়া হয়নি। এরপর মায়াকে কেন কাজে লাগানো হচ্ছে না এবং যখন সংগঠনের নাজুক অবস্থা, তৃণমূলে নানারকম সংকট, অনৈক্য এবং দলে কর্মীবান্ধব নেতার তীব্র অভাব সেই সময় আওয়ামী লীগ সভাপতি মায়াকে প্রেসিডিয়াম সদস্য হিসেবে আনলেন। এর মাধ্যমে শেখ হাসিনা অনেকগুলো বার্তা দিলেন।

প্রথমত, তিনি বুঝিয়ে দিলেন যে যারা দলের জন্য কাজ করে তাদেরকে একদিন না একদিন মূল্যায়ন করা হয়। দ্বিতীয়ত, সংগঠনের সাংগঠনিক কর্মী এবং কর্মীবান্ধব নেতাদেরকে তিনি কঠিন সময়ে সবসময় কাছে টেনে আনেন এবং তৃতীয়ত, দল এবং সংগঠন গোছাতে শেখ হাসিনা দৃঢ়প্রতিজ্ঞ, এর মাধ্যমে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়ামের কর্মপরিধি এবং কর্মকাণ্ড আরো বাড়বে বলেই অনেকে মনে করছেন।

স্টার সংবাদ