ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

শেখ হাসিনার মতো নেতা পেয়ে আমরা ভাগ্যবান: মায়া চৌধুরী

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১৬:০৭, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১

আপডেট: ১২:০৭, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২১

শেখ হাসিনার মতো নেতা পেয়ে আমরা ভাগ্যবান: মায়া চৌধুরী

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা এবং সাবেক ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম বলেছেন, ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মতো একজন নেতা পেয়েছি বলে আমাদের গর্ব করা উচিত। আল্লাহর কাছে দুই হাত তুলে আমাদের শুকরিয়া আদায় করা উচিত। আমরা ভাগ্যবান।’

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে আওয়ামী লীগ।

শেখ হাসিনার সঙ্গে ৪০ বছর রাজনীতি করেছেন উল্লেখ করে মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, ‘তিনি (শেখ হাসিনা) একাধারে ৪০ বছর দলের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। এর মধ্যে ১৮ বছর ক্ষমতায়, আর ২২ বছর স্বৈরাচার জিয়া, এরশাদ, খালেদার বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন তিনি। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন দৃষ্টান্ত আর নেই।’

প্রধানমন্ত্রীর জাতিসংঘে ভাষণ দেয়া প্রসঙ্গে মায়া চৌধুরী বলেন, ‘শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকাকালে জাতিসংঘে ১৭ বার বাংলায় ভাষণ দিয়েছেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর মতো সিনা উঁচু করে (মাথা উঁচু করে) বাংলায় ভাষণ দিয়েছেন। পৃথিবীর আর কোনো রাষ্ট্রনায়কের ভাগ্যে এমনটি হয়নি।’

বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েছে বলে জানিয়ে সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে এখন যে খাদ্য উৎপাদন হয় তা বিদেশেও রফতানি করা হয়। অথচ আগে বিদেশ থেকে আমাদের সাহায্য আনতে হতো। শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকায় আমাদের তা আর করতে হয় না।’

দেশে বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়ন প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এই কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, ‘বাংলাদেশে আগে লোডশেডিং হতো। কোনো কোনো জায়গায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১৮ ঘণ্টাই বিদ্যুৎ থাকতো না। আর এখন সেই লোডশেডিং হওয়া তো দূরের কথা, লোডশেডিং শব্দটাই ডিকশনারিতে নেই। এখন ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে।’

বাংলাদেশে একটি মানুষও গৃহহীন থাকবে না— শেখ হাসিনার এই কথাকে উল্লেখ করে মায়া চৌধুরী বলেন, শেখ হাসিনা যা বলেন, তা করেন। দেশে এক সময় অসংখ্য মানুষ গৃহহীন থাকতো। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে দেশের বিভিন্ন জায়গায় আশ্রয়ণ প্রকল্প তৈরি হয়েছে, এর মাধ্যমে মানুষ পেয়েছে মাথা গোঁজার ঠাঁই। দেশে এখন আর গৃহহীন মানুষ নেই।’

আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘ষড়যন্ত্র হচ্ছে, ষড়যন্ত্র হবে। যড়যন্ত্র মোকাবেলা করে এগিয়ে যাওয়াই আওয়ামী লীগের কাজ।’

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, শাজাহান খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, ডা. দীপু মনি, আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, মির্জা আজম, শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সবুর, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিনসহ কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহানগরের নেতাকর্মীরা।

>>আরও পড়ুন : শেখ হাসিনা বেঁচে আছেন বলেই দেশ আজ এগিয়ে চলছে