ঢাকা Saturday, 02 March 2024

পুলিশ পরিদর্শক মামুন হত্যায় আমি জড়িত নই : আরাভ 

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: 21:00, 16 March 2023

পুলিশ পরিদর্শক মামুন হত্যায় আমি জড়িত নই : আরাভ 

নানা আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে লাইভে এসে পুলিশ পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর) মামুন ইমরান খান হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে নিজে জড়িত নন বলে দাবি করেছেন আরাভ খান। তিনি জানান, যদি প্রমাণিত হয় এই হত্যাকাণ্ডে তিনি জড়িত, তবে যে শাস্তি হোক তা তিনি মাথা পেতে নেবেন। 

বৃহস্পতিবার (১৬ মার্চ) ফেসবুক লাইভে এসে এমন দাবি করেন আরাভ খান। 

সম্প্রতি দুবাইয়ে তার একটি জুয়েলারি দোকান উদ্বোধনে যোগ দিতে গেছেন বাংলাদেশের ক্রিকেট তারকা সাকিব আল হাসানসহ সংস্কৃতি অঙ্গনের নানা তারকারা। বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হওয়ার পর বাংলাদেশ পুলিশ জানায়, আরাভ খানই হচ্ছেন পুলিশ পরিদর্শক মামুন ইমরান খান হত্যামামলার পলাতক আসামি রবিউল ইসলাম ওরফে সোহাগ। তিনি নাম পরিবর্তন করে ভারতীয় পাসপোর্ট নিয়ে দুবাইতে অবস্থান করছেন। 

বৃহস্পতিবার লাইভে এসে আরাভ খান বলেন, পুলিশ পরিদর্শক মামুন ইমরান খান হত্যাকাণ্ডে আমি জড়িত নই। আমি ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলাম না। মামলা চলমান রয়েছে, রায়ের জন্য অপেক্ষা করুন। আমি যদি অপরাধী হই, বিচারে যদি দোষী হই - সেই সাজা মাথা পেতে নেব।

তিনি বলেন, কোনো পুলিশ সদস্য দেশ থেকে বাইরে আসার সময় আমাকে সহায়তা করেনি। আমি একজন ব্যবসায়ী। আমার সঙ্গে সবার সম্পর্ক থাকবে।

আরাভ বলেন, আমি জীবনে কাউকে একটি চড়ও মারিনি। আমার বিরুদ্ধে একটি মামলা চলমান রয়েছে, সেটি মিথ্যা নয়। আমি মামলা মোকাবিলা করতে রাজি আছি - এমন নয়, আমি লুকিয়ে যাবো, পালিয়ে যাবো। কিন্তু এটা সত্যি, সবাই বাঁচার আশা করে। সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস পেলে দেশে ফিরতে রাজি আছি। আমাকে দুদিন আগেও কেউ চিনতো না।

গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, বুর্জ খলিফায় একটি ফ্ল্যাট রয়েছে আরাভ খানের। এ বিষয়ে তিনি বলেন, যদি ফ্ল্যাট থেকে থাকে তাহলে সেটা অবশ্যই বাংলাদেশিদের জন্য গর্বের। মানুষের বিপদ তো সারাজীবন থাকে না, অবশ্যই একদিন না একদিন কেটে যাবে।

আরাভ বলেন, আমি ডিসকাউন্টে গ্রাহকদের কাছে স্বর্ণ পৌঁছে দেবো - এমন ঘোষণা দিয়েছিলাম আর সেই ঘোষণাই আমার জন্য কাল হয়েছে। স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের একটি বড় অংশ আমার বিপক্ষে রয়েছে।

তিনি বলেন, আমি অপরাধী কি না সেটা যাচাই করবেন আদালত। যে অফিসে হত্যাকাণ্ডটি সংঘটিত হয়েছে সেই অফিসের মালিক আমি ছিলাম বলেই আমার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

আরাভ বলেন, আমার বাবা দিনমজুর ছিলেন। আমার বাড়ি গোপালগঞ্জে। ঢাকায় এসে বিভিন্ন হোটেল-রেস্টুরেন্টে কাজ করেছি। ছোট থেকে বড় হয়েছি, হুট করে দুবাই আসিনি। না জেনে কেউ কোনো কথা বলবেন না।

তবে ভারতীয় পাসপোর্ট বা নাম বদলের ব্যাপারে তার কাছ থেকে কোনো স্পষ্ট বক্তব্য পাওয়া যায়নি।