ঢাকা Saturday, 02 March 2024

নির্বাচনের খরচ মেটাতে কিডনি বিক্রির চেষ্টা প্রার্থীর!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: 16:41, 12 February 2024

নির্বাচনের খরচ মেটাতে কিডনি বিক্রির চেষ্টা প্রার্থীর!

ছবি : সংগৃহীত

আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইন্দোনেশিয়ার জাতীয় নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে জোর প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন প্রার্থীরা। কিন্তু দেশটির অনেক প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ জোগাড় করা কঠিন হয়ে পড়েছে। এমন অবস্থায় প্রচারণার অর্থ জোগাড় করার জন্য কিডনি বিক্রির চেষ্টা করছেন এক প্রার্থী। খবর আল জাজিরা।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, ইন্দোনেশিয়ার বালি প্রদেশে দেশটির আসন্ন জাতীয় নির্বাচনের প্রচারণার জন্য গত কয়েক মাস ধরে কিডনি বিক্রির চেষ্টা করার পর এরফিন দেউই সুদান্তো নামক ৪৭ বছর বয়সী একজন প্রার্থী বলেন, আমি সিরিয়াস। আমার সম্পত্তি নেই। প্রচারণার অর্থ সংগ্রহের একমাত্র উপায় আমার কিডনি বিক্রি করা।

ইন্দোনেশিয়ার জাতীয় নির্বাচনের জন্য গত ২ মাস ধরে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন প্রার্থীরা। দেশটিতে দ্রব্যমূল্যসহ নির্বাচনী প্রচারণার খরচ যেকোন সময়ের চেয়ে বেশি। দেশটিতে নির্বাচনে অংশ নেওয়া দলগুলো সাধারণত তদারকি করার জন্য দলীয় নেতা-কর্মীদের অর্থ প্রদান করেন। এছাড়াও প্রচারণার জন্য টি-শার্ট এবং অন্যান্য সামগ্রী বিতরণ করেন।

এরফিন জানান, প্রচারণার জন্য তার মোট ৫০ হাজার ডলার প্রয়োজন। যার বেশিরভাগই সম্ভাব্য ভোটারদের সমর্থন সুরক্ষিত করার জন্য তাদের টিপস হিসেবে দেওয়া হবে। অন্য কথায়, ভোট কেনা। কর্মকর্তাদের পর্যবেক্ষণের অভাবের কারণে ভোট কেনা এখনও অব্যাহত রয়েছে এবং এতে যোগ দেওয়া ছাড়া আর কোন বিকল্প নেই।

ইন্দোনেশিয়ার আইন অনুযায়ী ভোট কেনা সম্পূর্ণ বেআইনি, এর জরিমানা সর্বোচ্চ ৩ হাজার ডলার এবং ৩ বছরের জেল। তবুও দেশটির নির্বাচন তদারকি সংস্থার চোখ ফাঁকি দিয়ে ইন্দোনেশিয়ায় চলছে ভোট কেনা-বেচা। এবছর দেশটির মোট ভোটারের অন্তত এক তৃতীয়াংশকে ভোট প্রদানের জন্য প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে। যেমন- অর্থ, ভাত, রান্নার তেল, ডিম ইত্যাদি।