ঢাকা Wednesday, 19 June 2024

হঠাৎই ফিরে গেলেন সায়ন্তিকা

বিনোদন ডেস্ক

প্রকাশিত: 20:58, 16 September 2023

হঠাৎই ফিরে গেলেন সায়ন্তিকা

বাংলাদেশের ছবি ‘ছায়াবাজ’-এ অভিনয় করছেন ওপার বাংলার নায়িকা সায়ন্তিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার বিপরীতে আছেন জায়েদ খান। 

গত ৩০ আগস্ট থেকে টানা এক সপ্তাহ শুটিং করে ৭ সেপ্টেম্বর হঠাৎই দেশে ফিরে গেছেন সায়ন্তিকা। এরপরই বাংলাদেশের গণমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে যে, ছবিটির নৃত্য পরিচালক ও প্রযোজকের সঙ্গে গণ্ডগোলের কারণে শুটিং শেষ না করেই ফিরে গেছেন টালিউড সুন্দরী। 

এসব বিষয়ে অবশেষে মুখ খুলেছেন সায়ন্তিকা। ভারতের গণমাধ্যমের কাছে তিনি বলেন, ‘প্রথমে অন্য মাস্টারজি (নৃত্য পরিচালক) এসেছিলেন শুটিংয়ের জন্য। তবে টাকা-পয়সা নিয়ে সমস্যার কারণে নাকি তিনি চলে যান। এরপর মাইকেল নামে ছেলেটি আসে। আমার অনুমতি না নিয়েই ও আমার হাত ধরে সরিয়ে দেয়। আমি পেশাদার শিল্পী, এ ধরনের আচরণ আমার পছন্দ নয়।’ 

সায়ন্তিকা আরো জানান, ‘কিছু টেকনিক্যাল সমস্যা নিয়ে আমি প্রযোজক মনিরুলের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেছিলাম। তবে কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি। ওর কোনো পরিকল্পনাও নেই, ব্যবস্থাও নেই। এক্কেবারেই সিস্টেমেটিক নয়।’

কাজটি শেষ করার ব্যাপারে সায়ন্তিকার ভাষ্য, ‘প্রযোজক যদি সঠিক পদ্ধতিতে কাজ করেন, তাহলে আমি নিশ্চয়ই ছবিটার কাজ শেষ করব। কিন্তু তার আগে আমায় চিত্রনাট্য, শট ডিভিশন পুঙ্খানুপুঙ্খ জানাতে হবে।’

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমকে প্রযোজক মনিরুল ইসলাম জানান, ‘দ্বিতীয় গানের শুটিং হচ্ছিল যেদিন, সেদিন সায়ন্তিকা আমার কাছে আসেন, অভিযোগ জানানোর জন্য। অভিযোগ ছিল কোরিওগ্রাফার মাইকেল নাকি তার হাত ধরেছে। মাইকেলকে সিনেমা থেকে বাদ না দিলে উনি কাজ করবেন না।’ 

তিনি আরো জানান, ‘খোঁজ নিয়ে জেনেছি মাইকেল কাজের জন্যই তার হাত ধরেছিল। তাই সায়ন্তিকাকে স্পষ্ট জানিয়েছি, কাজ করতে হলে মাইকেলের সঙ্গেই করতে হবে, না হলে প্রয়োজন নেই। এরপরই সায়ন্তিকা সেট ছেড়ে বের হয়ে যান।’ 

মনিরুল জানান, অকারণে তিনি বাংলাদেশের কোনো শিল্পীকে ছোট করতে পারবেন না, তাতে ক্ষতি হলে হবে।

ছবিটির নৃত্য পরিচালক মাইকেল বাবু জানান, ‘প্রথম গানের শুটিং শেষ করেছিলাম। এরপর দ্বিতীয় গানে নাচের স্টেপ দেখানোর জন্যই সায়ন্তিকার হাত ধরেছিলাম। তারপর তিনি বললেন মুখে বুঝিয়ে দিতে, এরপর সেটাই করি। আমাদের মধ্যে আর কোনো তর্ক হয়নি।’

ওই দিনের ঘটনা নিয়ে মাইকেল আরো বলেন, ঘটনার পরপরই প্রযোজক সায়ন্তিকাকে বলেছেন - ‘মাইকেলের সঙ্গে কাজ না করলে শুটিং বন্ধ থাকবে। আপনি কলকাতায় চলে যান। আপনার সঙ্গে যারা এসেছেন, সবাইকে টিকিট করে দিচ্ছি। পরবর্তী সময় বাকি কাজ করলে বাকি পারিশ্রমিক আপনাকে দেয়া হবে। তার আগে কোনো টাকা আর আপনাকে দেয়া হবে না।’

এ বিষয়ে ছবির নায়ক জায়েদ খান বলেন, ‘সায়ন্তিকা যে কথাগুলো বলেছেন, সেটাই ঠিক। এটাই সত্য। প্রকৃত সমস্যা প্রযোজকের।’