ঢাকা Wednesday, 19 June 2024

পদযাত্রায় পুলিশ-আইনজীবীদের সংঘর্ষ, এডিসিসহ আহত অর্ধশতাধিক

আইন-আদালত ডেস্ক

প্রকাশিত: 16:12, 12 September 2023

পদযাত্রায় পুলিশ-আইনজীবীদের সংঘর্ষ, এডিসিসহ আহত অর্ধশতাধিক

ছবি: সংগৃহীত

ভোটাধিকার ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে পদযাত্রা করার সময় আইনজীবীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনারসহ (এডিসি) অর্ধশতাধিক আইনজীবী আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা আইনজীবী সমিতির মূল ফটকের সামনে (ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের উল্টো পাশে) এ সংঘর্ষ হয়।

সংঘর্ষে কোতয়ালী জোনের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মুহিত কবির সেরনিয়াবাতসহ পাঁচ-ছয়জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আইনজীবীদের দাবি, পুলিশের লাঠিচার্জে অর্ধশতাধিক আইনজীবী আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে কয়েকজনকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

জানা যায়, ভোটাধিকার, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এ পদযাত্রার আয়োজন করে ইউনাইটেড লইয়ার্স ফ্রন্টের ঢাকা বার ইউনিট। দুপুর ১২টার দিকে তারা ঢাকা আইনজীবী সমিতির সামনে থেকে পদযাত্রা নিয়ে রায় সাহেব বাজার অভিমুখে যাত্রা করে। কিছু দূর যেতেই পুলিশ তাদের পথ রোধ করে। এ সময় তাদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। আইনজীবীরা পুলিশের ওপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। একপর্যায়ে পুলিশ তাদের ওপর লাঠিচার্জ করে। তারপরও আইনজীবীরা সামনের দিকে এগিয়ে যান। তারা ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের প্রধান ফটকের সামনে যান। সেখান দিয়ে সিএমএম আদালতে ঢুকতে গেলে পুলিশ তাদের আটকে দেয়। কিছুক্ষণ সেখানে ধাক্কাধাক্কি হয়। পরে পুলিশ প্রধান ফটক খুলে দেয়। আইনজীবীরা সিএমএম আদালতের সামনে অবস্থান নিয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। কিছুক্ষণ অবস্থান করে তারা সেখান থেকে ঢাকা আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে আসেন। তারা সেখানে এসে সমাবেশ করেন।

আইনজীবীরা বলেন, শেখ হাসিনার পদত্যাগের আন্দোলন চলছে, চলবে। যতই বাধা আসুক, আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাবো। যত বাধা আসবে, আন্দোলন আরও কঠোর হবে।

কোতয়ালী থানার ওসি শাহিনুর রহমান বলেন, আইনজীবীরা সাধারণত আদালতের ভেতর কর্মসূচি পালন করেন। তারা আজ আদালতের বাইরে এসে কর্মসূচি পালন করছেন। আমরা অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে প্রস্তুত ছিলাম। কিন্তু, তারা অতিউৎসাহী হয়ে আমাদের ওপর ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করেছেন। এতে আমাদের কয়েকজন সদস্য আহত হয়েছেন।

সংঘর্ষের পর আদালতপাড়ায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।