ঢাকা Tuesday, 18 June 2024

শৈলকুপায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা, আহত ৩

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: 13:53, 9 June 2024

আপডেট: 14:42, 9 June 2024

শৈলকুপায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা, আহত ৩

ছবি: স্টার সংবাদ

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা পরাজিত প্রার্থীর এক সমর্থককে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা ও দুই সমর্থককে পিটিয়ে জখম করার অভিযোগ উঠেছে বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থকদের বিরুদ্ধে।

শনিবার (৮ জুন) বিকালে উপজেলার ধলহরাচন্দ্র ইউনিয়নের ডাউটিয়া বাজার ও রোববার (৯ জুন) সকালে একই এলাকার বন্দেখালী ব্রীজে এ ঘটনা ঘটে। এতে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে ওই এলাকা। মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে শৈলকুপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।

আহতরা হলেন- কুশবাড়িয়া গ্রামের সিদ্দিক আলীর ছেলে ফয়েজ আলী (২৫), মাজদিয়া গ্রামের হাসান মন্ডলের ছেলে স্কুল শিক্ষক আবু দাউদ (৪০) এবং কুশবাড়িয়া গ্রামের ইব্রাহিম মন্ডলের ছেলে মাসুদ মন্ডল (৪৫)। তারা সবাই সদ্য সমাপ্ত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শামীম হোসেন মোল্লার সমর্থক ছিলেন বলে জানা গেছে।

জানা যায়, শনিবার বিকেলে ডাউটিয়া বাজারে ফয়েজকে একা পেয়ে কুপিয়ে আহত করে নির্বাচনে জয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা। অপরদিকে রোববার সকালে নিজ কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন মাজদিয়া গ্রামের সামাজিক মাতব্বর আবু দাউদ মাস্টার। পথে বন্দেখালী ব্রীজের কাছে পৌঁছালে বিজয়ী প্রার্থীর সমর্থকেরা তাকে মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে হাতুড়ি ও দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়ে জখম করে। এছাড়া একই দিন সকালে মাসুদ মন্ডল লাঙ্গলবাঁধ বাজারে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার পথে বন্দেখালী ব্রীজে পৌঁছালে তাকে মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়ে জখম করার ঘটনা ঘটে। তারা তিনজনই পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শামীম হোসেন মোল্লার সমর্থক বলে জানা গেছে। 

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গত ২১মে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিজয়ী চেয়ারম্যান প্রার্থী আরিফ রেজা মন্নুর সমর্থক মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক শিকদার ও পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শামীম হোসেন মোল্লার সমর্থক উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ধলহরাচন্দ্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান বিশ্বাসের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে এই হামলার ঘটনা ঘটেছে।

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ধলহরাচন্দ্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান বিশ্বাস বলেন, ফয়েজ, দাউদ ও মাসুদ আমার সমর্থক। তারা উপজেলা নির্বাচনে দোয়াত কলম মার্কার পক্ষে ভোট ও কাজ করে। এই কারণে শনিবার বিকেলে ডাউটিয়া বাজারে ফয়েজকে একা পেয়ে মোটরসাইকেল মার্কার সমর্থক মোস্তাক শিকদারের লোকেরা আমার কর্মী ফয়েজকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। আর আজ সকালে বন্দেখালী ব্রীজে দাউদ ও মাসুদকে একা পেয়ে একই লোকেরা হত্যার চেষ্টা করে। তিনি বলেন, বিজয়ী হওয়ার পর থেকেই আমার ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় মোটরসাইকেল প্রতীকের সমর্থক মোস্তাক শিকদারের নেতৃত্বে বাড়ি-ঘর ভাংচুর, হামলা চালানো হচ্ছে। তাদের ভয়ে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়সহ ৫ শতাধিক আওয়ামী লীগ কর্মী বাড়িছাড়া রয়েছে। 

এ ব্যাপারে মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তাক শিকদার বলেন, তারাই আমার কর্মীদের উপর হামলা করছে। 

শৈলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, ওই এলাকায় বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। উত্তেজনা থামাতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে মামলা নেওয়া হবে।