ঢাকা Saturday, 02 March 2024

রেলমন্ত্রীর ১৫ বছর অস্থাবর সম্পত্তি বেড়েছে ৩২ গুণ, বেড়েছে স্থাবর সম্পত্তিও

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: 20:09, 8 December 2023

রেলমন্ত্রীর ১৫ বছর অস্থাবর সম্পত্তি বেড়েছে ৩২ গুণ, বেড়েছে স্থাবর সম্পত্তিও

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পঞ্চগড়-২ আসনর আওয়ামী লীগর প্রার্থী অ্যাডভাকট নুরুল ইসলাম সুজন। টানা ১৫ বছর ধর এই আসন থক সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয় আসছন তিনি। একাদশ সংসদ নির্বাচন বিজয়ী হবার পর দায়িত্ব পান রেলপথ মন্ত্রণালয়ের। গত ১৫ বছর রলপথ মন্ত্রী অ্যাডভাকট নুরুল ইসলাম সুজনর অস্থাবর সম্পত্তি বেড়েছে ৩২ দশমিক ৫৪ গুণ। একই সঙ্গে আয় বেড়েছে ১৩ দশমিক ৭৪ গুণ। পাল্লা দিয় বেড়েছে স্থাবর সম্পত্তির পরিমাণও।

২০০৮ সালর নবম এবং আসন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় জমা দওয়া দুটি হলফনামা পর্যালাচনা কর এসব তথ্য জানা গেছে।
হলফনামা অনুযায়ী, ২০০৮ সালর নির্বাচনর আগে নুরুল ইসলাম সুজনের নগদ অর্থ ছিলা তিন লাখ ৩১ হাজার ৬৩৪ টাকা এবং ব্যাংক ছিলা ৪ লাখ ৭০ হাজার ৬৭৯ টাকা। ২০২৩ সাল এসে তার নগদ অর্থ দাঁড়িয়েছে এক কোটি ২১ লাখ ৮৯ হাজার ৭১ টাকা এবং ব্যাংক জমাকৃত অর্থের পরিমাণ এখন এক কোটি ৩৯ লাখ ২১ হাজার ৩৬৭ টাকা। অর্থাৎ, ২০০৮ সালর সংসদ নির্বাচনর আগে তার অস্থাবর সম্পত্তি ছিলা ৮ লাখ দুই হাজার ৩১৩ টাকা। যা গত ১৫ বছরে দাঁড়িয়েছে দুই কাটি ৬১ লাখ ১০ হাজার ৪৩৮ টাকায়।

হলফনামার তথ্য অনুযায়ী রেলপথ মন্ত্রীর আয়ের পরিমাণও বড়ছ ১৩ দশমিক ৭৪ গুণ। ২০০৮ সালর নির্বাচনের আগে নুরুল ইসলাম সুজনের বার্ষিক আয় ছিলো ৭ লাখ ৬৫ হাজার টাকা। এরমধ্যে কৃষিখাত থেকে এক লাখ ৪ হাজার টাকা এবং আইন পশা থক ৬ লাখ ৬১ হাজার টাকা। ১৫০০ সিসির টয়াটা কার ছিল একটি। স্বর্ণ ছিল ২৫ ভরি যা বিয়েতে উপহার পেয়েছিলন।

২০২৩ সালে এসে বার্ষিক আয়ের পরিমাণ দাঁড়িছে এক কোটি ৫ লাখ ১২ হাজার ৭৩৭ টাকা। এরমধ্যে কৃষিখাত থেকে দুই লাখ ৪৫ হাজার ৭২২ টাকা, মৎস্য চাষ করে আয় হয়েছে ৪৮ লাখ ১৫ হাজার ১৬ টাকা, বাড়ি ভাড়া থক দুই লাখ ৩৪ হাজার টাকা, শেয়ার/ব্যাংক আমানত থেকে ৪ লাখ ৪৮ হাজার ৯০৪ টাকা, আইন পেশা থেকে ২৪ লাখ ৩৪ হাজার ৭৪৭ টাকা, সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী হিসেবে ভাতা ও সুযোগ সুবিধা থেকে ২৩ লাখ ৩৪ হাজার ৩৪৮ টাকা। টানা তিনবারর এই সংসদ সদস্যর স্থাবর সম্পত্তিও বেড়েছে পাল্লা দিয়ে। 

২০০৮ সালর নির্বাচনের আগে নুরুল ইসলাম সুজনের কৃষি জমি ছিলো ৮ একর এবং ঢাকার বাড্ডায় অকৃষি জমি ছিলা ৪ দশমিক ৯৫ কাঠার প্লট। বর্তমান তার কৃষি জমির পরিমাণ ৩০ বিঘা এবং অকৃষি জমির মধ্যে ঢাকার বাড্ডায় ৪ দশমিক ৯৫ কাঠার প্লট, উত্তরায় ৫ কাঠার প্লট, বনশ্রীত দুইটি ১১০০ বর্গফুটর ফ্ল্যাট এবং ধানমন্ডিতে ১৮০০ বর্গ ফুট আয়তনর ২ দশমকি ৫ তলা পাকা বাড়ি রয়েছে। তবে ব্যক্তিগত কোন গাড়ির কথা উল্লখ করা হয়নি। অর্জনকালীন এসব সম্পদর মূল্য হলফনামায় দেখানো হয়নি। 

অ্যাডভাকট নুরুল ইসলাম সুজনের বাড়ি পঞ্চগড়র বোদা উপজলার ময়দানদিঘী ইউনিয়নর মহাজন পাড়া গ্রামে। তিনি পেশায় একজন আইনজীবী। বর্তমান পঞ্চগড় জলা আওয়ামী লীগর সভাপতির দায়িত্বেও রয়েছেন। ২০০১ সাল অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে পঞ্চগড়-২ আসনে প্রথম অংশগ্রহণ করে পরাজিত হন তিনি। পরে ২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রথম বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি। এরপর ২০১৪ সালের দশম এবং ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও তিনি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৯ সালের ৬ জানুয়ারি রেলপথ মন্ত্রণালয়র মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হন তিনি।