ঢাকা Sunday, 26 May 2024

পঞ্চগড়ে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা

পঞ্চগড় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: 11:33, 25 March 2023

পঞ্চগড়ে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যা

পঞ্চগড় সদর উপজেলায় রুবিনা আক্তার পিংকি (১৮) নামে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে। তবে স্বামীর দাবি, বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন তার স্ত্রী।

নিহত পিংকি উপজেলার হাঁড়িভাসা ইউনিয়নের বড়বাড়ি প্রধানপাড়া এলাকার আমিনুর রহমানের স্ত্রী এবং কামাত কাজলদিঘি ইউনিয়নের সরকারপাড়া এলাকার রবিউল ইসলামের মেয়ে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (২৩ মার্চ) রাতে ওই গৃহবধূ ‘বিষপান করেছেন’ দাবি করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে যান স্বামী আমিনুর। পরে পিংকিকে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে শুক্রবার (২৪ মার্চ) সকালে হাসপাতালে গিয়ে মরদেহের সুরতহাল করে থানা পুলিশ। ময়নাতদন্তের পর বিকেলে লাশ হস্তান্তর করলে রাতে দাফন করা হয়। 

জানা গেছে, হাঁড়িভাসা ইউনিয়নের বড়বাড়ি প্রধানপাড়া এলাকার তবিবর রহমানের ছেলে আমিনুর রহমানের সঙ্গে চার মাস আগে বিয়ে হয় রুবিনা আক্তার পিংকির। বিয়ের সময় দেড় লাখ টাকা যৌতুক দেয়া হয়। কিন্তু বিয়ের এক মাস পার না হতেই আবারো যৌতুক দাবি করে বসে আমিনুর। এজন্য প্রায় সময়ই মারধর করা হতো পিংকিকে। এ নিয়ে গত তিন মাসে কয়েকবার সালিশও হয়েছে।

পিংকির বাবা রবিউল বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মেয়েজামাই আমিনুর ফোনে জানায়, আমার মেয়ে বিষ খেয়েছে, তাকে হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে। আমি হাসপাতালে গিয়ে শুনি মেয়ে বেঁচে নেই। আমি ডাক্তারের সঙ্গে কথা বলেছি, আমার মেয়ে বিষ খায়নি - বলেছেন ডাক্তার।

তিনি আরো বলেন, আমার মেয়েকে বালিশচাপা দিয়ে হত্যা করেছে। এখন বাঁচার জন্য বিষপানের অপবাদ দিচ্ছে। আমি এই হত্যার বিচার চাই। 
এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান রবিউল।

পিংকির স্বামী আমিনুর বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে কয়েকটি চড়-থাপ্পড় দিয়েছিলাম। এজন্য অভিমানে বিষ পান করেছে পিংকি। 

তিনি আরো জানান, তার স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। 

পঞ্চগড় সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) দুলাল উদ্দীন বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে। অভিযোগ পেলে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দেন তিনি।