ঢাকা Monday, 15 April 2024

পঞ্চগড়ে পাথরখেকোদের দখলে ডাহুক নদী, বিপন্ন পরিবেশ

পঞ্চগড় প্রতিনিধি 

প্রকাশিত: 20:27, 30 January 2023

আপডেট: 20:27, 30 January 2023

পঞ্চগড়ে পাথরখেকোদের দখলে ডাহুক নদী, বিপন্ন পরিবেশ

পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়া উপজেলার ডাহুক নদী এখন পাথরখেকোদের অভয়াশ্রম হয়ে দাঁড়িয়েছে। নদীর বিভিন্ন স্থানে গর্ত করে বিক্ষিপ্তভাবে ট্রাক্টর দিয়ে, কোথাও আবার হাতে তৈরি যন্ত্র দিয়ে পাথর উত্তোলন করছে স্থানীয় লোকজন। ফলে নদী যেমন তার চিরচেনা রূপ-বৈচিত্র্য হারাচ্ছে, তেমনি নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ। 

পাথরখেকোদের কারণে ধ্বংস হচ্ছে নদীসংলগ্ন ব্যক্তিগত জমি ও বাগান। ফলে দিন দিন নদী তার গতিপথ পাল্টে ভিন্ন দিকে ঘুরে যাচ্ছে। বর্ষাকাল হলেও নদীতে তেমন পানি নেই। নদীর পানি কমে চর তৈরি হচ্ছে। নদী গভীরতা হারিয়ে প্রশস্ত হচ্ছে। এ কারণে বর্ষাকালে নদীর পানি বেড়ে দুকূল তলিয়ে যায়। এর ফলে স্থানীয় ফসলি জমিতে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে আমন ফসলের ক্ষতি হয়।

গত ২৬ জানুয়ারি সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহান ও বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের লোহাকাচি, বালাবাড়ি, শিলাইকুঠি, হারাদিঘিসহ বিভিন্ন এলাকায় ডাহুক নদীতে ট্রাক্টর দিয়ে, কোথাও আবার হাতে তৈরি যন্ত্র দিয়ে নদীতে গভীর গর্ত করে বালু তুলছেন স্থানীয় লোকজন। এতে নদী তার চিরচেনা রূপ হারিয়ে চরে পরিণত হচ্ছে। কমছে পানিপ্রবাহ। নদীর প্রশ্স্ততা বেড়ে কমছে গভীরতা। নদীর দুই তীর ভেঙে অনেকে জমি-বাগান হারিয়েছেন। 

স্থানীয়দের অভিযোগ, নদী শাসন করে স্থানীয় কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তি শ্রমিকদের দিয়ে ডাহুক নদী ও নদী সংলগ্ন সরকারি খাস জমি থেকে পাথর উত্তোলন করছেন। শ্রমিকদের নামমাত্র মজুরি দিয়ে মোটা অঙ্কের ফায়দা লুটছেন তারা। ফলে পরিবেশ যেমন হুমকির মুখে পড়ছে, তেমনি নদী তার গতিপথ হারিয়ে প্রকৃতিতে বিরূপ প্রভাব পড়ছে।

বুড়াবুড়ি ইউনিয়নের শিলাইকুঠি বালাবাড়ি এলাকার আফরোজা বেগম বলেন, ডাহুক নদীর বিভিন্ন এলাকায় যেভাবে পাথর তোলা হয় তাতে আমার মনে হয় এটা কোনো নদী না, পাথর কোয়ারি এলাকা। নদীকে ধ্বংস করে যেভাবে পাথর তোলা হচ্ছে প্রশাসনের কেউ কি দেখছেন না? এভাবে নদী থেকে পাথর তুললে তো নদী আর নদী থাকবে না। মরা নদীতে পরিণত হবে।

এ বিষয়ে তেঁতুলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ চন্দ্র সাহা জানান, নদীর কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে পাথর তোলার সুযোগ নেই। আমরা পাথর তোলা বন্ধ করার জন্য প্রচারণা চালিয়েছি। ওই এলাকাগুলোতে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর কিছু কখনোই বরদাশত করা হবে না।