ঢাকা Sunday, 26 May 2024

ইবির গণরুমে বিবস্ত্র করে র‍্যাগিং, তদন্তে মিলেছে সত্যতা 

ইবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: 17:34, 23 April 2024

ইবির গণরুমে বিবস্ত্র করে র‍্যাগিং, তদন্তে মিলেছে সত্যতা 

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) লালন শাহ হলের গণরুমে (১৩৬নং কক্ষ) এক নবীন ছাত্রকে বিবস্ত্র করে র‍্যাগিংয়ের সত্যতা পেয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও হল প্রশাসনের তদন্ত কমিটি। তদন্ত প্রতিবেদনে এ ঘটনায় জড়িত দুজনের সর্বোচ্চ শাস্তির সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া অন্য এক শিক্ষার্থীকে সতর্ক করার সুপারিশ করা হয়েছে।

জানা যায়, এ ঘটনায় অভিযুক্তরা হলেন ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়াবিজ্ঞান বিভাগের মুদাচ্ছির খান কাফি ও ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের মোহাম্মদ সাগর। এ ঘটনায় তাদের সরাসরি জড়িত থাকার প্রমাণ পাওয়ায় দুজনের সর্বোচ্চ শাস্তির সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া অপর অভিযুক্ত ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের উজ্জ্বল হোসেনের সংশ্লিষ্টতার মাত্রা কম থাকায় তাকে সতর্ক করার সুপারিশ করা হয়েছে। তারা সকলেই শাখা ছাত্রলীগের কর্মী ও সাধারণ সম্পাদক নাসিম আহমেদ জয়ের অনুসারী। 

এ বিষয়ে লালন শাহ হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক ড. আকতার হোসেন বলেন, আমরা তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনে ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। জড়িতদের শাস্তির সুপারিশ করে আমরা তদন্ত প্রতিবেদন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে প্রেরণ করেছি। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

প্রশাসনের গঠিত তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. দেবাশীষ শর্মা বলেন, আমরা ঈদের আগেই তদন্ত কার্যক্রম শেষ করেছি। ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। আমরা জড়িতদের বিধি অনুযায়ী শাস্তির সুপারিশ করেছি।

উল্লেখ্য, গত ৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্ববিদ্যালয়ের লালন শাহ হলের গণরুমে আল-ফিকহ অ্যান্ড লিগ্যাল স্টাডিজ বিভাগের ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষের এক নবীন শিক্ষার্থীকে রাতভর বিবস্ত্র করে র‍্যাগিংয়ের অভিযোগ ওঠে। এসময় নির্যাতনকারীরা ভুক্তভোগীকে লোহার রড দিয়ে পেটায় এবং পর্নোগ্রাফি দেখিয়ে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করতে বাধ্য করে। এ র‍্যাগিংয়ের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও হল প্রশাসন পৃথক দুটি তদন্ত কমিটি গঠন করে।