ঢাকা বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

ম্যারাডোনার বিরুদ্ধে কিউবান নারীর ধর্ষণের অভিযোগ

ক্রীড়া ডেস্ক 

প্রকাশিত: ১৪:০৯, ২৩ নভেম্বর ২০২১

আপডেট: ১৪:৪১, ২৩ নভেম্বর ২০২১

ম্যারাডোনার বিরুদ্ধে কিউবান নারীর ধর্ষণের অভিযোগ

মৃত্যুর পরও বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না ডিয়েগো ম্যারাডোনার। এবার এক কিউবান নারী অভিযোগ তুলেছেন, ম্যারাডোনার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও আটকে রাখার অভিযোগ এনেছেন। ২০ বছর আগে মাদকের চিকিৎসার জন্য কিউবায় থাকা অবস্থায় ম্যারাডোনার সাথে তার পরিচয় হয় বলে তিনি জানিয়েছেন।

৩৭ বছর বয়সী মেইভিস অ্যালভারেজ রেগো জানান, আজ থেকে বিশ বছর ১৬ বছর বয়সে তার দেখা হয়েছিল ম্যারাডোনার। মাদক নিরাময়ের জন্য ম্যারাডোনা তখন থাকছেন কিউবাতে। এসময় মুগ্ধতায় ম্যারাডোনার সাথে সম্পর্কে জড়ান ঐ নারী। কিন্তু তার কয়েক মাসের মধ্যেই পরিস্থিতি বদলালে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি তাকে কোকেইন সেবন করানোর চেষ্টাও করেছিলেন বলে অভিযোগ করেন।

বর্তমানে ১৫ ও ৪ বছর বয়সী দুই সন্তানের মা মেইভিস জানান, তাদের সম্পর্ক টিকেছিল ৫ বছর। তবে এ সময়ের পুরোটাই তাকে নির্যাতন সহ্য করতে হয়েছে। 

একটি ঘটনার কথা স্মরণ করে আলভারেজ রেগো বলেন, ২০০১ সালে মারাদোনার সাথে বুয়েনস আইরেসে ভ্রমণের সময় তাকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে কয়েক সপ্তাহ ধরে একটি হোটেলে আটকে রাখা হয়েছিল। তিনি আরও দাবি করেছিলেন যে হাভানায় এক অনুষ্ঠানে তিনি তাকে ধর্ষণ করেছিলেন এবং বেশ কয়েকজনকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেছিলেন। 

তিনি দাবি করেন, ম্যারাডোনা তাকে একবার তার হাভানার ঘরে ধর্ষণ করেছিলেন। এর বাইরে অনেকবার শারীরিক নির্যাতনের শিকারও হতে হয়েছে তাকে।

তবে তিনি কোন অভিযোগ দায়ের করেননি, তার পক্ষে আর্জেন্টিনার একটি এনজিও 'ফাউন্ডেশন ফর পিস' অভিযোগ দায়ের করার পরে তিনি এই সপ্তাহে প্রমাণ সরবরাহ করছেন।