ঢাকা বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

বিতর্কিত গোল : জাপান ও রেফারির পক্ষেই বলল ফিফা

ক্রীড়া ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩:১৪, ২ ডিসেম্বর ২০২২

বিতর্কিত গোল : জাপান ও রেফারির পক্ষেই বলল ফিফা

জাপান যখন স্পেনের বিপক্ষে ৫১ মিনিটে গোল করে, তখনই বিতর্কের শুরু। বলটি টাচলাইনের বাইরে থেকে ভেতরের দিকে ঢুকিয়ে তানাকার দিকে পাস দেন মিতোমা, যা পেয়ে গোল দিয়ে উচ্ছ্বাসে মাতেন জাপানিরা।

এই গোল নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেই বলছেন, গোলটি আসলে বাতিল হওয়া উচিত। তবে ফিফা কথা বলছে জাপান ও ম্যাচের রেফারির সিদ্ধান্তে পক্ষে। 

বিশ্বকাপে কোনো গোল হওয়ার পর যদি তা সন্দেহজনক মনে হয়, তাহলে ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্টের সহায়তায় গোলটা ভালোভাবে যাচাই-বাছাই করা হয়। স্পেনের বিপক্ষে তানাকার গোলটি হওয়ার পরও ভিএআরের সাহায্য নেয়া হয়। বারবার দেখেও শেষ পর্যন্ত রেফারি জাপানের পক্ষে সিদ্ধান্ত দেন।

ম্যাচ শেষে ফিফা জানায়, তাদের নিয়মানুযায়ী বল যদি ‘অ্যারিয়াল ভিউ’ (ওপরের দিক থেকে ভিউ) থেকে কোনো অংশ লাইনের মধ্যে থাকে, তাহলে সেই বল মাঠের মধ্যে আছে বলে ধরা হবে এবং খেলা চালিয়ে যেতে হবে। অর্থাৎ, গোললাইন টেকনোলজিতে যেভাবে ‘অ্যারিয়াল ভিউ’ থেকে দেখে নির্ধারণ করা হয় বল গোললাইন পেরিয়েছে কি না, ঠিক সেভাবেই বল মাঠের বাইরে গেছে কি না, তাও নির্ধারণ করা হয়েছে। যেহেতু ‘অ্যারিয়াল ভিউ’তে বলের পুরো ১০০ শতাংশ লাইন পার করেনি, তাই জাপানের পক্ষে সিদ্ধান্ত গেছে।

এদিকে ফিফার ৯ নম্বর আইনে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দেয়া হয়েছে, কোনো বল বেরিয়ে গেছে বলে তখনই ধরা হবে, যখন সেই বল মাটিতে ঠেকা বা শূন্যে থাকাবস্থায় গোললাইন বা টাচলাইনের পুরোটা পেরিয়ে গেছে। যে নিয়মের কারণে স্পেনের বিরুদ্ধে যখন মিতোমা বল পাস করেন, তখনো বল খেলার মধ্যেই ছিল। 

এদিকে ম্যাচটি ২-১ গোলে জিতে শেষ ১৬ নিশ্চিত করে জাপান। আর কোস্টারিকার বিপক্ষে ৪-২ গোলে বড় জয় নিয়েও গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হয় জার্মানিকে। ম্যাচ শেষে ধারাভাষ্যকারও বলেছিলেন, যদি জাপানের গোলটি বাতিল হতো তাহলে শেষ ১৬ নিশ্চিত হতো জার্মানির।