ঢাকা শনিবার, ২৮ মে ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

সহজে ট্রেনের টিকিট মিলছে না সহজে

মেহেদী হাসান

প্রকাশিত: ১৪:২২, ২৫ এপ্রিল ২০২২

আপডেট: ১১:৩৭, ২৮ এপ্রিল ২০২২

সহজে ট্রেনের টিকিট মিলছে না সহজে

অনলাইনে ‘সহজ’ অ্যাপের মাধ্যমে ট্রেনের টিকিট কাটতে গিয়ে ভোগান্তির শেষ নেই যাত্রীদের। ঈদ উপলক্ষে ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরুর প্রথমদিনই বিকল হয়ে যায় সহজ-এর সাইট। ওই ওয়েবসাইটে   টিকিট সংকট এবং টাকা দিয়েও টিকিট না পাওয়ার মতো নানা অভিযোগ জানিয়েছেন ভুক্তভোগী যাত্রীরা। এছাড়া সহজের হটলাইনে ফোন দিয়েও মিলছে না কাঙ্খিত সেবা।

সহজ-এর সাইটে গিয়ে দেখা যায় আগামী ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত ঢাকার বাইরে যাওয়ার জন্য ট্রেনের কোনো টিকিট নেই। সাধারণত শতভাগ ট্রেনের টিকিটের মধ্যে ৫০ শতাংশ সরাসরি রেলওয়ে স্টেশনের কাউন্টার ও বাকি ৫০ শতাংশ সহজের মাধ্যমে বিক্রি চুক্তি রয়েছে। কিন্তু কাউন্টারে এখনও টিকিট পাওয়া গেলেও সহজ-এর ওয়েবসাইট জানাচ্ছে তাদের কাছে আর কোনো টিকিট নেই। ফলে টিকিট কালোবাজারির আশঙ্কা যাত্রীদের।

আয়েশা সিদ্দিকা শিরিন নামের এক যাত্রী বলেন, তিনি ঢাকা থেকে সিলেট যাওয়ার টিকিট কাটতে সহজ অ্যাপে প্রবেশ করেন। কিন্তু অনেক্ষণ অপেক্ষা করেও পায়নি।

তিতুমীর কলেজের অনার্স শেষ বর্ষের ছাত্র জহির রায়হান জানান, রবিবার সকালে তিনি সহজ-এর ওয়েবসাইটের মাধ্যমে সান্তাহার থেকে ঢাকা যাওয়ার জন্য দ্রুতযান ট্রেনের দুটি চেয়ারকোচ টিকিটের আবেদন করেন। ওয়েবসাইটে টাকা প্রদানের পর ওটিপি নম্বর এলে তিনি সেটি নিশ্চিত করেন। এরপর থেকে ওয়েবসাইটটি বন্ধ হয়ে যায়। অনেকবার চেষ্টার করেও ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে ব্যর্থ হন এবং কাঙ্ক্ষিত টিকিটও পাননি তিনি। পরে সহজের ১৬৩৭৪ নম্বরের হটলাইনে ফোন দিলে সেখান থেকে কোনো প্রকার সহযোগিতা করা হয়নি তাকে।

আরেক ট্রেনযাত্রী মিহির কুমার জানান, রেলের নতুন সহজ অ্যাপে টিকিট কাটা নিয়ে সমস্যা লেগেই আছে। ওটিপি নম্বর আসে না। প্রোফাইল এডিট করার সুযোগ নেই। ওয়েবসাইটের ইন্টারফেস তেমন ভালো না।

বেশকিছু যাত্রীর সঙ্গে কথা হলে তারা অভিযোগ করে জানান, আগে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক সিস্টেম (সিএনএস) নামের একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সারাদেশে ট্রেনের টিকিট বিক্রি করতো। তাদের বিরুদ্ধেও যাত্রী হয়রানি ও টিকিট কালোবাজারির নানা অভিযোগ ছিল। কিন্তু সব রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে সহজ। বেশিরভাগ সময়ই সহজের সার্ভার ডাউন থাকে। ফলে স্টেশনে টিকিট কাউন্টারে গিয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে।

এদিকে গত ২৩ এপ্রিল ট্রেনের টিকিট বিক্রি শুরুর এক ঘণ্টার মধ্যেই ৫০ হাজারের বেশি টিকিট বিক্রি হয়ে যায় বলে জানায় প্রতিষ্ঠানটির পাবলিক রিলেশনস ম্যানেজার ফারহাত আহমেদ।

অপরদিকে আগামী ৩ মে ঈদ হলে ২৮ এপ্রিল বিক্রি হবে ২ মে’র ট্রেনের টিকিট। এছাড়া ঈদ যাত্রা শেষে ট্রেনের ফিরতি টিকিট বিক্রি শুরু হবে ১ মে থেকে।

গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সহজের সঙ্গে ৫ বছরের চুক্তি করা হয়। চুক্তি অনুযায়ী প্রতিটি টিকিটের জন্য সহজ লিমিটেডকে ২৫ পয়সা সার্ভিস চার্জ দিতে হবে।