ঢাকা Wednesday, 24 July 2024

শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা

ধর্ম ডেস্ক

প্রকাশিত: 13:19, 13 June 2024

শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা

ফাইল ছবি

আগামীকাল শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে পবিত্র হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা। আজ বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) অর্থাৎ ৭ জিলহজ রাত থেকেই মক্কা থেকে হজযাত্রীরা তাবুর শহর মিনার উদ্দেশে রওনা হবেন। এশার নামাজের পর মক্কার নিজ নিজ আবাসন থেকে ইহরামের কাপড় পরে মিনার উদ্দেশে রওনা হবেন হাজিরা।

মক্কার আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, হজের সময় মক্কার তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস হতে পারে। আর্দ্রতা থাকবে ৮৫ শতাংশ। আকাশ আংশিক মেঘলা থাকতে পারে, যা হজযাত্রীদের জন্য কিছুটা হলেও আরামদায়ক হবে।

জানা গেছে, হজ কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আজ বৃহস্পতিবার মিনার উদ্দেশে রওনা হবেন হজযাত্রীরা। ইহরামের কাপড় পরে এবং অন্যান্য জিনিস সঙ্গে নিয়ে মিনায় যাবেন তারা। ছয় দিন পরে হাজি হিসেবে ফিরে আসবেন তারা।

বাংলাদেশ থেকে সরকারি ব্যবস্থাপনায় যাওয়া হাজিরা মোয়াল্লেম নম্বর ৭ ও ৮-এর অধীনে থাকবেন। আর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এজেন্সির মাধ্যমে আসা হাজিরা থাকবেন ৩, ৪, ৬, ১১, ২০, ৫৭, ৫৯, ৬০, ৭৫-৭৭, ৯৯, ১০১, ১০৩ থেকে ১৩৭ মোয়াল্লেম নম্বরের অধীনে। মিনায় হাজিদের সহায়তার জন্য ২৪/৬২ নম্বর তাঁবুতে পাঁচ দিনব্যাপী বাংলাদেশ হজ কার্যালয়ের কার্যক্রম চালানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

পবিত্র হজ পালন করতে আসা বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত মুসল্লিরা এশার নামাজ আদায় করে মক্কার মসজিদুল হারাম থেকে প্রায় নয় কিলোমিটার দূরে মিনায় যাবেন।

সেখানে রাতযাপন হজের অন্যতম সুন্নত। রাতযাপন শেষে মুসল্লিরা মিনাতেই থাকবেন। এখানে জোহর, আসর, মাগরিব, এশা ও ফজরের নামাজ আদায় করা মুস্তাহাব।

এরপর ৯ জিলহজ সকাল থেকে হাজিগণ আরাফাতের ময়দানে উপস্থিত হতে শুরু করবেন। ৯ জিলহজ দুপুর থেকে সুর্যাস্তের আগ পর্যন্ত আরাফার ময়দানে অবস্থান করাই হলো হজের মূল ফরজ আমল। এদিনকেই বলা হয় হজের দিন। এ দিনের নাম ইয়াওমুল আরাফা।

এরপর আরাফার ময়দান থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে মুজদালিফায় রাত যাপন ও পাথর সংগ্রহ করবেন তারা। ১০ জিলহজ ফজরের নামাজ আদায় করে মুজদালিফা থেকে আবার মিনায় ফিরবেন তারা। মিনায় বড় শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ, কোরবানি ও মাথা মুণ্ডন বা চুল ছেঁটে মক্কায় পবিত্র কাবা শরিফ তাওয়াফ ও সায়ী করবেন। তাওয়াফ শেষে মিনায় ফিরে ১১ ও ১২ জিলহজ অবস্থান ও প্রতিদিন তিনটি শয়তানকে পাথর নিক্ষেপ করবেন।

নিয়মমাফিক আগামীকাল শুক্রবার থেকে হজের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। তবে বিপুলসংখ্যক হজযাত্রীর মিনায় পৌঁছানোর সুবিধার্থে আজ থেকেই তাদের নেয়া শুরু করবেন মোয়াল্লেমরা।