ঢাকা বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

রাজশাহীতে চলছে মঞ্চ তৈরি, ঢুকতে পারছেন না বিএনপি নেতাকর্মীরা

সারাদেশ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৩:৩৪, ২ ডিসেম্বর ২০২২

রাজশাহীতে চলছে মঞ্চ তৈরি, ঢুকতে পারছেন না বিএনপি নেতাকর্মীরা

রাজশাহীতে বিএনপির বিভাগীয় গণসমাবেশ উপলক্ষে নগরীর ঐতিহাসিক মাদরাসা মাঠে চলছে মঞ্চ নির্মাণ। কিন্তু সমাবেশস্থলে যোগ দিতে নির্ধারিত সময়ের আগেই বিভিন্ন জেলা থেকে আসতে শুরু করা বিএনপি নেতাকর্মীদের সেখানে ঢুকতে দিচ্ছে না আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। 

শুক্রবার (২ ডিসেম্বর) দুপুর পর্যন্ত মাঠের মধ্যে কাউকে ঢুকতে দেয়া হয়নি। এ পর্যন্ত বিএনপির আটটি সমাবেশে এরকম ঘটনা চোখে পড়েনি।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) সমাবেশের অনুমতি পাওয়ার পর ১ ডিসেম্বর থেকে রাজশাহী নগরের ঐতিহাসিক মাদরাসা মাঠ ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে পুলিশ। পরিবহন ধর্মঘট ও নানা প্রতিবন্ধকতা এড়াতে নির্ধারিত সময়ের আগেই আসা বিভাগের বিভিন্ন জেলার নেতাকর্মীদের বিশ্রাম ও রাত যাপনের জন্য সোমবার থেকে সমাবেশস্থলে সামিয়ানা তৈরির কাজ করলেও মঙ্গলবার পুলিশ তা ভেঙে দেয়। এরপর সমাবেশস্থলের পাশেই ঈদগাহ মাঠে বিভিন্ন জেলা থেকে সমাবেশে আসা নেতাকর্মীরা সামিয়ানা টানিয়ে অবস্থান করছেন।

যেসব শর্তে সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়েছে তাতে উল্লেখ রয়েছে, মঞ্চ তৈরির সঙ্গে যারা জড়িত (আইডি কার্ডসহ) তারা ব্যতীত অন্য কেউ আগামী ৩ ডিসেম্বর সমাবেশ শুরুর পূর্বে সমাবেশস্থলে প্রবেশ কিংবা অবস্থান করতে পারবে না। সমাবেশের যাবতীয় কার্যক্রম ওইদিন দুপুর ২টায় শুরু করে ৫টায় শেষ করতে হবে। এদিকে মাঠের গেটে এবং মাঠের মধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী অবস্থান করছে। তারা মাঠের মধ্যে বিএনপির কোনো নেতাকর্মীকে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রাজশাহী মহানগর বিএনপির আহবায়ক অ্যাডভোকেট এরশাদ আলী ঈসা বলেন, ‘বিভিন্ন জেলা থেকে আগত নেতাকর্মীদের জন্য মাঠে সামিয়ানা তৈরি করা হলেও মঙ্গলবার পুলিশ তা ভেঙে দিয়েছে। এরপর থেকে পুলিশ মাঠে কোনো নেতাকর্মীকে ঢুকতে দেয়নি। শুধু মঞ্চ তৈরির জন্য কিছু লোক প্রবেশ করতে দিয়েছে। তাই বিভিন্ন জেলা থেকে আগত নেতাকর্মীরা ঈদগাহ মাঠে অবস্থান করছেন।’ 

মাঠে বিএনপি নেতাকর্মীদের ঢুকতে না দেয়ার কারণ জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দায়িত্বরত এক পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ‘ওপরের নির্দেশ রয়েছে এজন্যই সমাবেশস্থলে কাউকে ঢুকতে দেয়া হচ্ছে না। মাঠের মধ্যে যাতে বিশৃঙ্খলা এবং অরাজকতা না ঘটে এজন্যই মাঠে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি।’