ঢাকা শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

তাজরীন ট্রাজেডি: ক্ষতিপূরণের দাবিতে গার্মেন্টসের সামনে বিক্ষোভ

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ১৩:৫২, ২৪ নভেম্বর ২০২২

তাজরীন ট্রাজেডি: ক্ষতিপূরণের দাবিতে গার্মেন্টসের সামনে বিক্ষোভ

ঢাকার আশুলিয়ায় ভয়াবহ আগুনে পুড়ে যাওয়া তাজরীন গার্মেন্টস ট্রাজেডির আজ দশ বছর। এ উপলক্ষে সকালে উপজেলার ইয়ারপুর ইউনিয়নের নিশ্চিতপুর এলাকায় তাজরীন গার্মেন্টসের সামনে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে শ্রমিকরা।

মানববন্ধনকারী শ্রমিকরা জানায়, ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর তাজরীন গার্মেন্টস ভয়াবহ আগুন লাগে। এসময় আগুনে প্রায় ১১৭জন নারী ও পুরুষ শ্রমিক মারা যায়। আর আহত হয় অনেক শ্রমিক। আহত শ্রমিকরা এখনো মানবেতর জীবন যাপন করছেন পঙ্গু হয়ে।  

এদিকে আজ দশ বছর উপলক্ষে সকালে তাজরীন গার্মেন্টস এর সামনে বিভিন্ন শ্রমিক সংগঠন ও নিহত আহত শ্রমিকদের পরিবারের সদস্যরা অস্থায়ী বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। পরে সেখানে তারা বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন। এসময় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন থেকে শ্রমিকরা ক্ষতিপূরণ ও তাজরীন গার্মেন্টস এর মালিক দেলোয়ারের ফাঁসির দাবি জানান সরকারের কাছে।

এসময় অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন। এদিকে নিহত শ্রমিকদের সকলের ছবি তাজরীনের মুল ফটকে টাঙ্গানো হয়েছে শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে। এদিকে পুরে যাওয়া তাজরীন গার্মেন্টস এর বহুতল ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় এখনো রয়েছে। যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে তারজীন গার্মেন্টস এর সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এদিকে ঘটনার ১০ বছর পেরিয়ে গেলেও শেষ হয়নি বিচারকাজ।

তবে রাষ্ট্রপক্ষ আশা করছে, খুব দ্রুত শেষ হবে বিচারকাজ। বর্তমানে মামলাটি ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দিলারা আলো চন্দনার আদালতে বিচারাধীন। সর্বশেষ গত ১৮ মে মামলাটিতে দুই সাক্ষী সাক্ষ্য দিয়েছেন। তাঁরা হলেন পোশাক শ্রমিক হালিমা খাতুন এবং সুপারভাইজার সিরাজুল ইসলাম। আগামী ১ জানুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য পরবর্তী তারিখ ধার্য রয়েছে। এখন পর্যন্ত মামলাটিতে ১০৪ জন সাক্ষীর মধ্যে ১১ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে।

২০১৩ সালের ২২ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠানটির মালিক, ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে ঢাকার মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পরিদর্শক এ কে এম মহসিনুজ্জামান খান অভিযোগপত্রটি দাখিল করেন। ঘটনার এক বছর ২৮ দিন পর আসামিদের বিরুদ্ধে তদন্তে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় তিনি এই অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

অভিযোগপত্রভুক্ত আসামিরা হলেন তাজরীন ফ্যাশনস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন, চেয়ারম্যান মাহমুদা আকতার, প্রতিষ্ঠানটির লোডার শামীম, স্টোর ইনচার্জ (সুতা) আল আমিন, সিকিউরিটি ইনচার্জ আনিসুর রহমান, সিকিউরিটি সুপারভাইজার আল আমিন, স্টোর ম্যানেজার হামিদুল ইসলাম লাভলু, প্রশাসনিক কর্মকর্তা দুলাল উদ্দিন, প্রকৌশলী এম মাহবুবুল মোর্শেদ, ফ্যাক্টরি ম্যানেজার আব্দুর রাজ্জাক, কোয়ালিটি ম্যানেজার শহীদুজ্জামান দুলাল, প্রডাকশন ম্যানেজার মোবারক হোসেন মঞ্জু, নিরাপত্তারক্ষী রানা ওরফে আনারুল।

মামলায় অভিযুক্ত আসামিদের মধ্যে আল আমিন, রানা ওরফে আনারুল, শামীম ও মোবারক হোসেন পলাতক রয়েছেন। অন্য আসামিরা জামিনে রয়েছেন।