ঢাকা রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

শাহবাগে ছাত্রদের বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের হামলা

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ২১:২৮, ৭ আগস্ট ২০২২

আপডেট: ২১:২৯, ৭ আগস্ট ২০২২

শাহবাগে ছাত্রদের বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের হামলা

ছবি সংগৃহীত

জ্বালানি তেলের ‘অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি’ ও ‘লুটপাটের’ প্রতিবাদে রাজধানীর শাহবাগে বামপন্থী ছাত্রসংগঠনগুলোর ডাকা বিক্ষোভ সমাবেশে হামলা চালিয়েছে পুলিশ। রোববার (৭ আগস্ট) সন্ধ্যায় এ হামলা চালানো হয়।

অভিযোগ পাওয়া গেছে, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) রমনা অঞ্চলের অতিরিক্ত উপকমিশনার (এডিসি) হারুন অর রশিদের নেতৃত্বে এ হামলা চালানো হয়।  পুলিশের এই কর্মকর্তা গত এপ্রিলে নিউমার্কেট এলাকায় ঢাকা কলেজের ছাত্রদের সঙ্গে ব্যবসায়ী-হকারদের সংঘর্ষের সময় ‘গুলি শেষ হয়ে গেছে’ বলায় এক কনস্টেবলকে থাপ্পড় মেরে সমালোচিত হন।  

তবে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন এডিসি হারুন অর রশিদ। তিনি জানান, হামলার অভিযোগ অসত্য। পুলিশ কোনো হামলা করেনি। তারাই (বাম ছাত্রসংগঠনের নেতাকর্মী) বরং পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে।

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে পূর্বঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে রোববার সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠনগুলোর ব্যানারে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকা থেকে বাম সংগঠনগুলোর বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়। মিছিলকারীরা শাহবাগ ও কাঁটাবন মোড় ঘুরে শাহবাগ মোড়ে এসে মূল সড়ক সংলগ্ন ফুটপাতে সমাবেশে মিলিত হন।

সমাবেশের শেষদিকে পুলিশ বাম সংগঠনের নেতাকর্মীদের লাঠিপেটা শুরু করে। এসময় পেটানো হয় সংগঠনগুলোর শীর্ষ নেতাদেরও। ছাত্রদের পিটিয়ে জাতীয় জাদুঘর পর্যন্ত সরিয়ে দেয় পুলিশ। হামলায় অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে বাম সংগঠনগুলো।

হামলার পর শাহবাগ থেকে মিছিল নিয়ে টিএসসির দিকে যান বাম সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা। সেখানে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে হামলার প্রতিবাদে সমাবেশ করেন।

সমাবেশে ছাত্র ইউনিয়নের (নজির আমিন চৌধুরী-রাগীব নাঈম অংশ) কেন্দ্রীয় সহসভাপতি অনিক রায় বলেন, জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ডাকা সমাবেশে বিনা উসকানিতে পুলিশ ন্যক্কারজনক হামলা করেছে। হামলায় অন্তত ২০ জন আহত হয়ে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

তিনি বলেন, হামলা করে আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না। হামলার প্রতিবাদে আগামীকাল সোমবার (৮ আগস্ট) দুপুর ১২টায় মধুর ক্যান্টিন থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হবে। মিছিল-পরবর্তী সমাবেশ থেকে কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।