ঢাকা মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

জনগণের ‘ভরসার স্থান’ হতে পুলিশের প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রী

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ১৮:৪৬, ২১ জুন ২০২২

আপডেট: ১৯:৩১, ২১ জুন ২০২২

জনগণের ‘ভরসার স্থান’ হতে পুলিশের প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রী

বিপদে-আপদে দেশের মানুষের ‘ভরসার স্থান’ হতে পুলিশ বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

পদ্মা সেতু এলাকার নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষ্যে সেতুটির দুই পারে স্থাপিত দুটি থানা- পদ্মা সেতু উত্তর ও দক্ষিণ থানা উদ্বোধনকালে সরকারপ্রধান এমন আহ্বান জানান। 

আজ মঙ্গলবার (২১ জুন) গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি বাংলাদেশ পুলিশ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে থানা দুটি উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। একই সঙ্গে তিনি নবনির্মিত ১২টি জেলা পুলিশ হাসপাতাল, ছয়টি মহিলা ব্যারাক এবং অনলাইন সাধারণ ডায়েরি (জিডি) কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এছাড়া ভূমিহীন ও গৃহহীনদের কাছে পুলিশের দ্বারা নির্মিত আরো ১২০টি বাড়ি হস্তান্তর কর্মসূচিরও উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। 

শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ৮ মে সারদা পুলিশ একাডেমিতে যে ভাষণ দিয়েছিলেন, সেখানে তিনি বলেছিলেন, ‘আপনারা জনগণের সাহায্য-সহযোগিতায় এদেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা করবেন। আমি দুনিয়ার অনেক জায়গায় গিয়েছি। গ্রেট ব্রিটেনে দেখেছি একজন সিপাহীকেও জনসাধারণ শ্রদ্ধা করে। কোনো পুলিশ কর্মচারীকে দেখলে তারা আশ্রয় নেয়ার জন্য তার কাছে দৌড়ে যায়। তারা মনে করে পুলিশ তাদের সহায়।’

শেখ হাসিনা বলেন, জাতির পিতার এই নির্দেশ আপনারা মেনে চলবেন, সেটাই আমি চাই। আমাদের দেশেও পুলিশ বাহিনী সেভাবেই জনগণের আস্থা অর্জন করবে, যেন জনগণ মনে করে যে তার জীবন রক্ষায়, মান রক্ষায় পুলিশই হচ্ছে শেষ ভরসা। কাজেই সেই ভরসার স্থান হিসেবে পুলিশকে জনগণের সামনে নিজেকে তুলে ধরতে হবে।

করোনা অতিমারি মোকাবিলায় পুলিশের দায়িত্বশীল ভূমিকার কথা স্মরণ করে এই বাহিনীর প্রশংসা করেন সরকারপ্রধান। এসময় বাংলাদেশ পুলিশের উন্নয়ন ও আধুনিকায়নে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও আওয়ামী লীগ সরকারের নেয়া নানা উদ্যোগের কথাও তুলে ধরেন শেখ হাসিনা।

মুন্সিগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে পদ্মা সেতু উত্তর এবং শরিয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতু দক্ষিণ নামে অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধাসম্পন্ন দুটি থানা স্থাপন করা হয়েছে। 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিববর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ পুলিশ সারাদেশে গৃহহীন মানুষের জন্য নিজস্ব অর্থে মোট ৫২০টি বাড়ি নির্মাণ করেছে। এর আগে প্রধানমন্ত্রী চলতি বছরের ১০ এপ্রিল গৃহহীনদের হাতে বাংলাদেশ পুলিশ নির্মিত ৪০০টি বাড়ি হস্তান্তর করেন। আজ দ্বিতীয় পর্যায়ে গৃহহীনদের জন্য নির্মিত আরো ১২০টি বাড়ি হস্তান্তর করা হয়। 

বাংলাদেশ পুলিশের এই অনুষ্ঠানে গণভবনের সঙ্গে ভার্চুয়ালি রাজারবাগ পুলিশ লাইন, পদ্মা সেতু উত্তর থানা, মুন্সীগঞ্জ, মহিলা পুলিশ ব্যারাক প্রান্ত খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি), খুলনা, ময়মনসিংহ পুলিশ হাসপাতাল এবং পিরোজপুর জেলার পুলিশ লাইন প্রান্ত যুক্ত ছিল।

অনুষ্ঠানে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট একটি ভিডিওচিত্রও প্রদর্শিত হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এবং জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো. আখতার হোসেন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ।