ঢাকা বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

নাক ডাকার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন যেভাবে

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ১১:০৭, ৮ নভেম্বর ২০২১

আপডেট: ১১:৪২, ৮ নভেম্বর ২০২১

নাক ডাকার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন যেভাবে

নাক ডাকার শব্দে ঘুম ভাঙেনি এমন মানুষ পাওয়া যাবে না। সম্প্রতি গবেষকরা জানিয়েছেন, নাক ডাকার প্রবণতা থাকলে মস্তিষ্কের ক্ষমতা ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে। এছাড়া স্ট্রোক, হার্টের সমস্যা, অ্যারিথমিয়া, জিইআরডি, ক্রনিক মাথা যন্ত্রণা এবং ওজন বৃদ্ধির মতো সমস্যাও মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে পারে।

নাক ডাকার কারণ
১. শরীরে ওজন বেশি হলে ও পেশি দুর্বল হলে নাক ডাকা হতে পারে।
২. মানুষের যত বয়স বাড়ে কণ্ঠনালী তত সরু হতে থাকে। ফলে নাক ডাকা শুরু হয়।
৩. সাধারণত মহিলাদের তুলনায় পুরুষদের শ্বাসনালী সরু হয়। আর এই জন্যেই পুরুষ মানুষের নাক ডাকার সমস্যা বেশি হয়ে থাকে।
৪. নাকে পলিপ থাকলে বা সাইনাসের সমস্যা থাকলে নাক ডাকা শুরু হতে পারে।
৫. নিয়মিত মদ্যপান, ধূমপান ও ঘুমের ওষুধ খেলে নাক ডাকা শুরু হয়।
৬. লম্বা টান টান হয়ে শুলেও নাক ডাকে অনেকে। গলার কাছে পেশিগুলো টেনে থাকে না। আলগা হয়ে যায়। ফলে, গলা থেকে নিশ্বাস বেরতে অসুবিধে হয়।

আপার রেসপিরেটারি ট্র্যাকে এয়ার ভাইব্রেশনের ফলে নাক ডাকে মানুষ। জীবনযাপন পদ্ধতিতে কিছু বদল এনে এই অভ্যেসের পরিবর্তন সম্ভব। যাঁরা নাক ডাকেন বেশিরভাগই স্লিপ অ্যাপনিয়া কন্ডিশনে আক্রান্ত।

নাক ডাকার সমস্যা থেকে মুক্তির উপায়

ঘুমনোর পজিশনে পরিবর্তন আনুন : চিৎ হয়ে শোবেন না, তাহলে জিভের পেছন দিক টাগরায় লেগে বেশি নাক ডাকে। যে কোনও পাশে কাত হয়ে ঘুমোন।

খোলা নাসারন্ধ্র : নাক বন্ধ থাকলে বেশি নাক ডাকে মানুষ। তাই ঘুমনোর আগে গরম জলে স্নান করুন। নাক ভালো করে ঝেড়ে পরিষ্কার করে শুতে যান। প্রয়োজনে নাসাল স্ট্রিপ নিন।

অ্যালকোহল বন্ধ করুন : গলার পেছনের দিকে মাংসের স্থিতিস্থাপকতা কমিয়ে দেয়। ঘুমনোর ঘণ্টা চার পাঁচ আগে একেবারই অ্যালকোহল খাবেন না।

পানির ভারসাম্য বজায় রাখুন : সারা দিনে শরীরে পানি ঠিকমতো পৌঁছালে নাকও হাইড্রেটেড থাকে। ফলে নাক কম ডাকে মানুষ।

মাথা একটু তুলে শোবেন : একটি অতিরিক্ত বালিশ নিয়ে মাথা একটু তুলে শোবেন। এতে নাক ডাকার থেকে রেহাই মিলবে।

ওজন কমান : স্থূলকায় লোকদের নাক ডাকার প্রবণতা বেশি থাকে। স্বাস্থ্যকর খাবার ও ব্যায়ামের মাধ্যমে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন।

ভালো ঘুম নিশ্চিত করুন : যাদের ঘুম ভালো করে হয় না তারা বেশি নাক ডাকেন। তা ছাড়া কম ঘুম থেকে শরীরে আরও নানা রোগ বাসা বাঁধে। তাই দিনে ৮ ঘণ্টা ঘুম জরুরি।