ঢাকা Wednesday, 24 July 2024

হজ পালনের সময় ১৪ জর্ডানির মৃত্যু, নিখোঁজ ১৭ জন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: 23:05, 16 June 2024

হজ পালনের সময় ১৪ জর্ডানির মৃত্যু, নিখোঁজ ১৭ জন

ছবি : সংগৃহীত

পবিত্র হজ পালনে গিয়ে সৌদি আরবে ১৪ জর্ডানির ‍মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে অনেকে হিট স্ট্রোক করে মারা গেছেন। এছাড়া আরো ১৭ জন নিখোঁজ রয়েছেন। রোববার (১৬ জুন) জর্ডানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে। খবর স্কাই নিউজ।

এক বিবৃতিতে জর্ডানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, হজের রীতি পালনের সময় জর্ডানের কমপক্ষে ১৪ জন হজযাত্রী মারা গেছেন এবং আরো ১৭ জন নিখোঁজ হয়েছেন। তীব্র তাপদাহের কারণে সান স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে ওই ১৪ জন নিহত হয়েছেন বলে নিশ্চিত করেছে দেশটির মন্ত্রণালয়।

এদিকে ইরানের রেড ক্রিসেন্টের প্রধান পীরহোসেন কুলিবান্দ পৃথকভাবে বলেছেন, ‘এ বছর হজের সময় মক্কা ও মদিনায় এখন পর্যন্ত ইরানি পাঁচ হজযাত্রী প্রাণ হারিয়েছেন।’ তবে তারা কীভাবে মারা গেছেন সেই বিষয়ে কোনও তথ্য জানাননি তিনি।

এদিকে এবারে হজে তামপাত্রা নিয়ে আগেই সতর্ক করেছিল সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। নির্দেশনায় বলা হয়েছে, খোলা স্থানে তাপমাত্রা ৪৮ ডিগ্রি ছাড়িয়ে যেতে পারে। এজন্য হজযাত্রীদের সতর্ক থাকতে বলা হয়েছিল এবং বেলা ১১টা থেকে দুপুর তিনটা পর্যন্ত বাইরে যাওয়ার ব্যাপারেও সতর্ক করা হয়েছিল। 

হজ পালনের সংকল্প করে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে সৌদিতে আসা প্রায় ১৮ লাখ মুসলিম তীব্র গরম উপেক্ষা করেই হজ পালন করছেন। সৌদি আরবের নিরাপত্তা বাহিনী এবং মেডিকেল কর্মীরা অসুস্থ হজযাত্রীদের সেবায় নিয়োজিত রয়েছে। তাদেরকে ভালো রাখতে ঠাণ্ডা পানির স্প্রে দেয়া হচ্ছে। 

হজে গরম থেকে বাঁচতে অনেক হজ যাত্রী ছাতা ব্যবহার করছে। যদিও হজের যাবতীয় আনু্ষ্ঠানিকতা খোলা আকাশের নিচেই অনুষ্ঠিত হয়। 

বিশ্বের বৃহত্তম ধর্মীয় সমাগমগুলোর একটি পবিত্র হজ। ইসলামের পঞ্চম স্তম্ভের একটি এই হজ। ধর্মীয় বিধান অনুযায়ী, প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক ও সামর্থ্যবান মুসলিম নারী-পুরুষের জন্য জীবনে অন্তত একবার হজ করা ফরজ।

পবিত্র হজের অনেক আচার-অনুষ্ঠান বাইরে এবং পায়ে হেঁটে সম্পাদন করতে হয়। আর এসব আচার-অনুষ্ঠান বিশেষ করে বয়স্কদের জন্য চ্যালেঞ্জ তৈরি করে।

সৌদি আরবের সরকার হজ পালনের সময় হজযাত্রীদের হতাহতের বিষয়ে কোনো তথ্য প্রকাশ করেনি। তবে জলবায়ু-নিয়ন্ত্রিত এলাকাসহ তাপ প্রশমনের বিভিন্ন পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করেছে দেশটি। এছাড়া হজযাত্রীদের মাঝে বিনামূল্যে পানি বিতরণ ও সূর্যের তাপ থেকে নিজেদের সুরক্ষার পরামর্শ দিয়েছে সৌদি কর্তৃপক্ষ।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সরকার সৌদিতে হজ পালনের সময় নিজ নাগরিকদের হতাহতের বিষয়ে পরিসংখ্যন প্রকাশ করে। সেই হিসেবে গত বছর হজের সময় সৌদিতে কমপক্ষে ২৪০ জন হজযাত্রী প্রাণ হারান। যাদের অনেকেই ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক। তবে এই হজযাত্রীদের মৃত্যুর কারণ নির্দিষ্ট করে জানা যায়নি।

সৌদি আরবের সরকারি এক কর্মকর্তা ফরাসি বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, গত বছর হজের সময় ১০ হাজারের বেশি তাপজনিত অসুস্থতার ঘটনা রেকর্ড করা হয়েছিল। এর মধ্যে ১০ শতাংশই হিট স্ট্রোকে আক্রান্ত হয়েছিলেন।

সৌদির এক সমীক্ষায় বলা হয়েছে, দেশটিতে প্রত্যেক দশকে আঞ্চলিক তাপমাত্রা গড়ে শূন্য দশমিক ৪ সেন্টিগ্রেড হারে বাড়ছে এবং প্রশমন ব্যবস্থা নেওয়ার পর তাপদাহ পরিস্থিতি আরও খারাপ আকার ধারণ করছে।