ঢাকা রোববার, ০৭ আগস্ট ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

মালয়েশিয়ায় কর্মী নিয়োগের আবেদন আপাতত বন্ধ 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৮:২৭, ৫ আগস্ট ২০২২

আপডেট: ১৮:২৮, ৫ আগস্ট ২০২২

মালয়েশিয়ায় কর্মী নিয়োগের আবেদন আপাতত বন্ধ 

মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মী নিয়োগের আবেদন আপাতত বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। শুক্রবার (৫ আগস্ট) দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয় এক বিবৃতির মাধ্যমে ঘোষণা করে, ১৫ আগস্ট থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত নিয়োগ আবেদন বন্ধ থাকবে।

বিবৃতিতে আরো জানানো হয়, ১ সেপ্টেম্বর থেকে আবেদনের জন্য নতুন সুবিধা চালুর কথা জানানো হবে। 

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ মালয়েশিয়া তাদের শ্রম চাহিদা পূরণের জন্য স্থানীয়দের পাশাপাশি বাংলাদেশসহ বিদেশি কর্মীদের ওপর নির্ভর করে থাকে। কিন্তু গত তিন বছর মহামারির কারণে নতুন করে বিদেশি কর্মী নিয়োগ স্থগিত থাকায় দেশটিতে চরম শ্রমিক সংকট দেখা দিয়েছে। 

এই শ্রমিক সংকট নিরসনে ২০২১ সালের ১৮ ডিসেম্বর বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করে মালয়েশিয়া। এ বছরের ২ জুন ঢাকায় যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে শ্রমবাজার খোলার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়। এরপর বিভিন্ন পর্যায়ে যোগাযোগ করেও বাংলাদেশ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করতে পারেনি দুই দেশ।

বিদেশি কর্মী নিয়োগ দিতে মালয়েশিয়া সরকার অনলাইনে আবেদন করার পোর্টাল চালু করলেও তা আগামী ১৫ আগস্ট থেকে ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সাময়িক বন্ধ ঘোষণা করেছে দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়। এতে বিপাকে পড়তে পারে বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশের শ্রমিকরা।

এদিকে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর জন্য এখন পর্যন্ত ১১টি রিক্রুটিং এজেন্সিকে নিয়োগের অনুমতি দিয়েছে বাংলাদেশের প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। 

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, সবশেষ ৩১ জুলাই একটি রিক্রুটিং এজেন্সিকে মালয়েশিয়ায় কর্মী পাঠানোর জন্য নিয়োগের অনুমতি দেয়া হয়।

এর আগে বাংলাদেশের কর্মী নিয়োগে কারিগরি সহযোগিতার জন্য মালয়েশিয়ার একটি বিশেষজ্ঞ টিম ঢাকায় এসেছিল। দেশটিতে বিদেশি কর্মী নিয়োগে সহায়তার জন্য নিজস্ব কেন্দ্রীয় অনলাইন পদ্ধতি ‘ফরেন ওয়ার্কার্স সেন্ট্রালাইজড ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম’ (এফডব্লিউসিএমএস) তথ্য প্রযুক্তিতে বিশেষজ্ঞরা কাজ করছেন।

গত ৪ জুলাই প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিবের সঙ্গে দেখা করে এফডব্লিউসিএমএস পদ্ধতি ঢাকায় কীভাবে ব্যবহৃত হবে, এই বিষয়টি তুলে ধরেন এফডব্লিউসিএমএস বিশেষজ্ঞরা। পরে জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো-বিএমইটির কর্মকর্তাদেরও এই পদ্ধতি সম্পর্কে অবহিত করা হয়।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগে মালয়েশিয়ার এফডব্লিউসিএমএস পদ্ধতি সংযুক্ত করতে হবে জানিয়ে সম্প্রতি মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ হাইকমিশনে চিঠি দেয়া হয়।

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি কর্মী পাঠাতে ৮০ হাজার টাকার কাছাকাছি খরচ পড়বে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ।