ঢাকা শনিবার, ২৮ মে ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

স্মার্টফোন নিয়ে অশান্তি, ভড়াটে খুনি দিয়ে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক 

প্রকাশিত: ১৮:৫৭, ২২ জানুয়ারি ২০২২

আপডেট: ১৯:৫৩, ২২ জানুয়ারি ২০২২

স্মার্টফোন নিয়ে অশান্তি, ভড়াটে খুনি দিয়ে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা

স্ত্রীর স্মার্টফোন কেনা নিয়ে অসন্তোষ। আর এর জেরে ভড়াটে খুনি দিয়ে স্ত্রীকে খুনের চেষ্টা করল স্বামী। শুক্রবার মধ্যরাতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের নরেন্দ্রপুর থানার লস্করপুর পেয়ারাবাগানে এই ঘটনাটি ঘটে। এই ঘটনায় স্বামী রাজেশ ঝা ও ভাড়া করে আনা এক দুবৃত্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবেও এখনও পলাতক রয়েছে একজন। ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

ওই মহিলার দাবি, শুক্রবার রাতে তাঁর স্বামী রোজকার মতো ঘরে ঢোকে। স্ত্রীর কাছ থেকে চাবি নিয়ে নিজেই দরজায় তালা দেন। দেরি হচ্ছে দেখে গৃহবধূ দেখতে যান। আচমকাই একজন দুবৃত্ত তাঁর মুখ চেপে ধরে। অপর দুবৃত্ত ধারালো অস্ত্র হাতে তাঁর দিকে তেড়ে আসে। চিৎকার করতে থাকেন গৃহবধূ।  তাঁর গলায় ধারালো অস্ত্রের কোপ মারে দুষ্কৃতীরা। গৃহবধুর চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে আসেন।


এসময় পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে দুই দুবৃত্ত ও তাঁর স্বামী। তবে স্থানীয়রাই একজন দুবৃত্তকে ধরে ফেলে। প্রতিবেশীরা ওই গৃহবধূকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়। এরপর নরেন্দ্রপুর থানার পুলিশকে খবর দেওয়া হয়।  এক দুবৃত্ত ও মহিলার স্বামীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। 

গৃহবধূর অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই তাঁকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করত স্বামী রাজেশ ঝাঁ। কিন্তু সন্তানের মুখের দিকে তাকিয়ে সব কিছু মেনে নিতেন তিনি। এমনকি সন্দেহের বশে পাড়া প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলতেও দিত না তার স্বামী। মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারতেন না ওই গৃহবধূ। করোনা আবহে সন্তানের স্কুল বন্ধ হয়ে যায়। অনলাইন পড়াশোনার জন্য একটি স্মার্টফোন কিনে দেওয়ার কথা বলেন। স্বামী ফোন কিনে দেয়নি। নিজের জমানো টাকা থেকেই স্মার্টফোন কেনেন গৃহবধূ। কিন্তু স্বামীর কাছ থেকে ফোন লুকিয়ে রাখতেন। স্বামী বাড়ি থেকে বেরনোর পরই ফোন ব্যবহার করতেন। কিন্তু একদিন স্ত্রীকে ফোন ব্যবহার করতে দেখে ফেলেন ওই ব্যক্তি। তারপরই স্ত্রীকে খুনের চেষ্টা করে রাজেশ।