ঢাকা রোববার, ২৩ জানুয়ারি ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচন পেছানো নিয়ে কমিশনকে হাইকোর্টের নির্দেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪:১১, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

আপডেট: ১৪:১২, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

পশ্চিমবঙ্গে নির্বাচন পেছানো নিয়ে কমিশনকে হাইকোর্টের নির্দেশ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে আগামী ২২ জানুয়ারি চার পুরসভা নির্বাচন। এদিকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণও দেশটিতে বাড়ছে হুহু করে। এমন পরিস্থিতিতে নির্ধারিত সময়ে নির্বাচন হবে কি না সে সিদ্ধান্ত নিতে নির্বাচন কমিশনকে আদেশ দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্ট। 

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের ডিভিশন বেঞ্চ জানান, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে নির্বাচন করানো যায় কি না, তা ভাবনাচিন্তা করুক রাজ্য নির্বাচন কমিশন। একই সঙ্গে নির্বাচন কমিশন কী সিদ্ধান্ত নিয়েছে, তা ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে জানানোরও নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। 

হাইকোর্ট রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে পরামর্শ দিয়েছে, কোভিড আবহে নির্বাচন চার থেকে ছয় সপ্তাহ পেছনো যায় কি না সেটা বিবেচনা করে দেখতে।

হাইকোর্ট তার আদেশে বলেছেন, বিধাননগর, চন্দননগর, আসানসোল এবং শিলিগুড়ির নির্বাচন আগামী চার কিংবা ছয় সপ্তাহ পিছিয়ে দেয়া যেতে পারে কি না, সে সিদ্ধান্ত নিতে হবে নির্বাচন কমিশনকে। আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত জানাতে হবে। সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় নির্বাচন কমিশনকে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কথা মাথায় রাখতে হবে। তারাই ‘স্বাধীনভাবে’ বিবেচনা করবে এই পরিস্থিতিতে নির্বাচন করানো ঠিক কি না। 
প্রসঙ্গত, চার পুরসভা নির্বাচন পেছানোর আবেদন জানিয়ে কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেছিলেন সমাজকর্মী বিমল ভট্টাচার্য। আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য শুনানিতে বলেছিলেন, রাজ্যের ওই চার পুরসভার মেয়াদ আগেই শেষ হয়েছে। সেখানে রাজ্য সরকার নিযুক্ত প্রশাসকরা কাজ চালাচ্ছেন। তাই এখন নির্বাচন না হলেও সাংবিধানিক সঙ্কটের প্রশ্ন নেই।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চে পুরসভা নির্বাচন স্থগিত করার ক্ষমতা কার রয়েছে এই নিয়ে তর্ক বেধে যায় রাজ্য ও কমিশনের মধ্যে। তবে শুক্রবার যে রায় কলকাতা হাইকোর্ট দিয়েছেন, তাতে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের ওপরই দায়িত্ব ছাড়া হয়েছে। সুতরাং বল এখন রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কোর্টে। এখন দেখার তারা কী সিদ্ধান্ত নেয়।

খবর : হিন্দুস্তান টাইমস।