ঢাকা Saturday, 23 September 2023

মৃতের সঙ্গে বসবাস

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: 16:10, 31 August 2023

মৃতের সঙ্গে বসবাস

মৃত বাবা পাউলো সিরিন্দার সঙ্গে মামাক লিসা

বাবা-মা, স্বামী-স্ত্রী কিংবা পরিচিত-অপরিচিত কেউ মারা গেলে সাধারণত তাকে কবর দেয়া অথবা অন্য কোনো ধর্মীয় পন্থায় তার শেষকৃত্য সম্পন্ন করাই রীতি। কিন্তু ইন্দোনেশিয়ার টোরাজান গোত্রের মানুষ তাদের প্রিয়জনকে মৃত্যুর পর কাছ ছাড়া করে না। সযতনে তার দেহ সংরক্ষণ করে নিজ ঘরে। 

অদ্ভুত এই ঘটনায় অনেকেই অবাক হতে পারেন, পেতে পারেন ভয়। কিন্তু এমনটাই করে থাকেন ইন্দোনেশিয়ার দক্ষিণাংশের সুলাওয়েসি অঞ্চলে তানা টোরাজা এলাকায় টোরাজানরা। 

এসব মৃত ব্যক্তিকে প্রতিদিন গোসল করানোর পাশাপাশি তার পোশাক পরিবর্তন করা হয়। দিনে দুবার তাকে দেয়া হয় খাবার ও সিগারেট। এছাড়া যে কক্ষে মৃতদেহটি রাখা হয় তার এক কোণে একটি বড় পাত্র রাখা হয়, যেটাকে ‘পায়খানা’ হিসেবে মনে করা হয়। 

কীভাবে এতদিন সংরক্ষিত থাকে এসব মরদেহ? এমন প্রশ্নের উত্তর হলো, এসব মরদেহে ফরমালিন পুশ করা হয় ইনজেকশনের মাধ্যমে। এর ফলে দেহে পচন ধরা রোধ হয়। 

বিবিসির প্রতিবেদক সাহার জান্দ কথা বলেন এমন একজন টোরাজান নারীর সঙ্গে। মামাক লিসা নামে ওই নারী জানান, তিনি ১২ বছর ধরে তার বাবা পাউলো সিরিন্ডার দেহ সংরক্ষণ করে রেখেছেন। 

লিসা বলেন, বাবা আমাদের অত্যন্ত ভালোবাসতেন। বাবাকে যদি কবর দেয়া হতো, তাহলে আমরা যে বিচ্ছেদ যন্ত্রণা ভোগ করতাম তা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না।  

লিসার কথা অনুসারে, তার বাবা ‘এখনো অসুস্থ’। তিনি বলেন, কখনো কখনো অসুস্থতাকেই ‘মৃত’ বলে ধরে নেয়া হয়। 

মানেনে উৎসবে মৃত স্বজনদের সঙ্গে টোরাজানরা

টোরাজান গোত্রের এই সংস্কার চলে আসছে শত বছর ধরে। তারা বিশ্বাস করে, বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের প্রতিটি বস্তুর মধ্যেই আত্মা রয়েছে। এই আত্মাই বর্তমান ও মৃত্যু-পরবর্তী সময়ের মধ্যে যোগসূত্র তৈরি করে।

এই গোত্রের মানুষরা প্রতিবছর শেষকৃত্য উৎসব পালন করে থাকে। তাদের এই রীতির নাম ‘মানেনে’। এ সময় তারা তাদের আত্মীয়স্বজনের মরদেহ কবর থেকে তুলে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে নতুন কাপড় পরায়। তার সঙ্গে ছবি তোলে।  সাধারণত জুলাই-আগস্ট মাসে এই উৎসব হয়ে থাকে। 

গ্রীষ্মের সময় এই এলাকায় ভিড় বাড়ে পর্যটকদের। অনেকেই উৎসুক থাকেন, মৃতদের নিয়ে এই উৎসব পর্যবেক্ষণে।

সূত্র : দ্য ইনডিপেনডেন্ট ও বিবিসি।