ঢাকা Friday, 12 July 2024

মতলব উত্তরে বিক্রি বেড়েছে মাংস কাটার ‘খাইট্টা’র

মতলব (চাঁদপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: 20:14, 14 June 2024

মতলব উত্তরে বিক্রি বেড়েছে মাংস কাটার ‘খাইট্টা’র

ঘনিয়ে আসছে ঈদুল আজহা। ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা এই ঈদে আল্লাহর নামে হালাল পশু কোরবানি করে থাকেন। এসময় চাহিদা বেড়ে যায় কোরবানির পর মাংস তৈরিতে ব্যবহৃত বিভিন্ন উপাদানের দাম।

দেশের অন্যান্য এলাকার মতো চাঁদপুরের মতলব উত্তর উপজেলাতে এমন চিত্র দেখা গেছে। 

শুক্রবার (১৪ জুন) সরেজমিনে মতলব উত্তর উপজেলার ছেংগারচর বাজার ঘুরে দেখা যায়, মাংস কাটার কাজে ব্যবহৃত ‘খাইট্টা’ বা গাছের গুঁড়ির চাহিদা বেড়েছে। তবে বিক্রেতারা বলছেন, এখনো আশানুরূপ বিক্রি হচ্ছে না।

এদিকে খাইট্টা তৈরি হয় স’মিলে, গাছের গুঁড়ি কেটে। বিভিন্ন স’মিলের মালিকরা জানান, মাংস কাটার কাজে কাঠের এই গুঁড়ির কোনো বিকল্প নেই। মূলত তেঁতুল গাছের কাঠ দিয়ে খাইট্টা বানানো হয়। কারণ এটি মজবুত ও টেকসই।

খাইট্টা বিক্রেতারা জানান, পেশাদার কসাইরা সারাবছরই খাইট্টা কেনেন। তবে কোরবানি এলে সাধারণ মানুষও খাইট্টা কেনার জন্য ভিড় জমান। অন্যান্য বছর কোরবানির এক সপ্তাহ আগে থেকে বেচাকেনা জমজমাট হলেও এবার বিক্রি অনেকটাই কম। 

ছেংগারচর বাজারের খাইট্টা বিক্রেতা ইসমাইল হোসেন আখন জানান, ঈদ এলে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা খাইট্টা কিনে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করেন। সাধারণ মানুষও আসেন কেনার জন্য। তবে এবার বিক্রি তুলনামূলক কম। 

মাঈনউদ্দিন নামে আরেক বিক্রেতা বলেন, মাংস কাটার জন্য তেঁতুল কাঠের তৈরি খাইট্টার বিকল্প নেই। আকারভেদে প্রতি পিস খাইট্টা ২০০ থেকে হাজার টাকায় বিক্রি হয়। আরো বড় আকারের খাইট্টাও আছে। এগুলো পেশাদার কসাইরা কিনে থাকেন। 

এদিকে ক্রেতারা জানান, খাইট্টার দাম অনেক চড়া। আনোয়ার হোসেন নামে এক ক্রেতা বলেন, এবার গুঁড়ির দাম দ্বিগুণ হয়েছে। গতবছর গুঁড়ি ২৫০ থেকে ৩০০ টাকায় কিনলেও এবার সেটি ৫০০ টাকার ওপর দাম হাঁকছে।