ঢাকা Wednesday, 24 July 2024

‘অবহেলিত দক্ষিণাঞ্চলে এখন উন্নয়নের জোয়ার বইছে’

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশিত: 17:05, 19 September 2023

‘অবহেলিত দক্ষিণাঞ্চলে এখন উন্নয়নের জোয়ার বইছে’

সাবেক নৌ পরিবহন মন্ত্রী ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ফেডারেশন সভাপতি মোঃ শাহজাহান খান বলেছেন, এক সময় দক্ষিণাঞ্চল ছিল অবহেলিত। এখন সেই দক্ষিণাঞ্চলে উন্নয়নের জোয়ার বইছে। ঢাকা থেকে কুয়াকাটায় আসতে ১৩ টি ফেরি পাড় হতে হতো। এক থেকে দেড় দিন সময় লাগতো কুয়াকাটা আসতে। ফেরিবিহীন সড়ক আমাদের জীবন যাত্রার মান পাল্টে দিয়েছেন। এখন ঢাকা থেকে কুয়াকাটা আসতে ৫-৬ ঘণ্টা সময় লাগে। পদ্মা সেতু হওয়ায় দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের ভাগ্য খুলে গেছে। 

মঙ্গলবার (১৯ সেপ্টেম্বর) পটুয়াখালী আন্তঃজেলা বাস মিনিবাস,কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন কুয়াকাটা শাখা অফিস উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

শাহজাহান খান বলেন, সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী নাজমুল হুদা পদ্মা সেতুর প্রস্তাবের বিরোধিতা করেছিল। সেই বিএনপি জামাত এখন পদ্মা সেতুর সুফল ভোগ করছে। পদ্মা সেতু রেলপথ সহ যোগাযোগ ব্যবস্থার আমুল পরিবর্তন এনেছে। এনেছে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি। এরশাদ, জিয়া, খালেদা জিয়াসহ বিএনপি জামাত একাধিক বার ক্ষমতায় ছিল। তারা দক্ষিণাঞ্চলসহ দেশে কোন উন্নয়ন করেনি। তারা দুর্নীতিতে পাচঁবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। 

শাহজাহান খান আরো বলেন, বিএনপি জামাতের সময় সড়কে চাঁদাবাজি সহ নৈরাজ্যের সৃষ্টি করেছে। আর আওয়ামী লীগ সরকার সড়কের শৃঙ্খলা ফিরিয়ে এনেছে। সড়ক এখন চাঁদাবাজ মুক্ত। 

তিনি বলেন, পায়রা বন্দর ও কুয়াকাটা ঘিরে ব্যাপক উন্নয়ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। আগামী পাঁচ বছরে আমুল পরিবর্তন হবে। কুয়াকাটা-পায়রা হবে আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক জোন।  এসময় তিনি আওয়ামী লীগ তথা শেখ হাসিনাকে  ভোট দিয়ে আবারও ক্ষমতায় আনতে সকলের প্রতি আহবান জানান।


পটুয়াখালী আন্তঃজেলা বাস মিনিবাস,কোচ ও মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়ন কুয়াকাটা শাখার সভাপতি মোঃ ছগির মোল্লার সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান ,বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ফেডারেশন সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ ওসমান আলী, কেন্দ্রীয় মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ সুলতান আহমেদ, কুয়াকাটা পৌর মেয়র মোঃ আনোয়ার হাওলাদার প্রমুখ। 

অনুষ্ঠানে পরিবহন শ্রমিক সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।