ঢাকা বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

নকলায় কবর খুঁড়ে লাশ চুরির সংখ্যা নিয়ে বিভ্রাট

শেরপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৮:২৪, ২৩ জানুয়ারি ২০২৩

নকলায় কবর খুঁড়ে লাশ চুরির সংখ্যা নিয়ে বিভ্রাট

শেরপুরের নকলায় সম্প্রতি ১১টি কবর খুঁড়ে লাশ চুরির ঘটনায় পত্র-পত্রিকায় খবর প্রকাশিত হয়েছে। গত ২০ জানুয়ারি রাতে উপজেলার নকলা পৌরসভাধীন কায়দা বাজারদী সর্বজনীন গোরস্তান থেকে লাশগুলো চুরি হয়। কিন্তু চুরি হওয়া লাশের সংখ্যা নিয়ে এখন সৃষ্টি হয়েছে বিভ্রাট।

এর আগে নকলায় রাতের আঁধারে কবর খুঁড়ে লাশ চুরির ঘটনা ঘটেছে। এভাবে কবর থেকে লাশ চুরি নিয়ে চিন্তিত অনেকেই।

জানা যায়, শনিবার (২১ জানুয়ারি) ফজরের নামাজ শেষে কয়েকজন মুসল্লি তাদের স্বজনের কবর জিয়ারত করতে গেলে বিষয়টি তাদের নজরে আসে। ঘটনাটি জানাজানি হলে এলাকার লোকজন এসে গোরস্তানে ভিড় জমায়।

কায়দা বাজারদী সর্বজনীন গোরস্তান ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি নকলা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম জানান, ওই গোরস্তান থেকে ১১টি লাশ চুরির ঘটনা ঘটেছে।

এদিকে কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ সৈয়দ আলম মঞ্জু জানান, ১১টি কবর খুঁড়লেও লাশ চুরি হয়েছে পাঁচটি।
 
এদিকে নকলা থানার ওসি রিয়াদ মাহমুদের দাবি, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। কঙ্কাল চোরেরা গোরস্তানের ১১টি কবর খুঁড়লেও কোনো লাশ চুরির ঘটনা ঘটেনি। চোরচক্র কবরগুলো খুঁড়ে কঙ্কাল আছে কি-না তা দেখে চলে গেছে। 

গোরস্তান ব্যবস্থাপনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক, কমিটির এক সদস্য এবং নকলা থানার ওসির দেয়া তথ্যের গরমিলে জনমনে এই বিভ্রাট সৃষ্টি হয়েছে।

এলাকাবাসী জানান, গোরস্তানটি ব্যস্ততম রাস্তার পাশে হওয়া সত্ত্বেও লাশ চুরির ঘটনা উদ্বেগজনক। এই চোরচক্রকে খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন তারা।

এদিকে লাশ চুরি হওয়ার পর থেকে ওই গোরস্তানে পর্যাপ্ত আলোর জন্য সেখানে বৈদ্যুতিক বাল্ব লাগানোর কাজ শুরু করেছেন গোরস্তান ব্যবস্থাপনা কমিটি।