ঢাকা রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

ভোটার হালনাগাদের অনিয়ম চরমে, ফরম সংকটের অজুহাত

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৪:৩২, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২২

ভোটার হালনাগাদের অনিয়ম চরমে, ফরম সংকটের অজুহাত

দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলায় ভোটার হালনাগাদ কার্যক্রম প্রত্যেকের বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করার কথা থাকলেও, তথ্য সংগ্রহকারীরা তা না করার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ উঠেছে নিজ কর্মস্থল, চায়ের দোকান, হাট-বাজার, গ্রাম-গঞ্জ কোন এক স্থানে বসে হালনাগাদ কার্যক্রম চলছে। একইসাথে অভিযোগ উঠোছ ভোটার তালিকায় অর্ন্তভুক্ত হওয়ার ফরম সংকটের।

ভোটার ফরম সংকট ও সরবরাহ নিয়ে পরস্পর বিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও দিনাজপুর জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা।

জানা যায়, গত ২১ আগষ্ট থেকে ফুলবাড়ীতে ভোটার হালনাগাদ শুরু হয়ে শেষ হওয়ার কথা ২৮ সেপ্টেম্বর। বাড়ীতে বাড়ীতে গিয়ে তথ্য সংগ্রহের কথা থাকলেও কোন এক জায়গায় বসে দায়সারা ভোটার হালনাগাদের কার্যক্রম করা হয়। অনেকে দিনের পর দিন ঘুরেও ভোটার হালনগাদের ফরম পায়নি। প্রয়োজনের তুলনায় ভোটার ফরম সরবরাহ না থাকায় এমন ভোগান্তি হয়েছে। এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মনে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

বিষয়টি নিয়ে সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থী।

ভুক্তভুগী আমিনুল ইসলাম, তন্ময় সরকার, সঞ্জু সরকার, আশিক, মোছা. কুলসুম ও ফাহিম বলেন, তথ্য সংগ্রহকারী ও নির্বাচন কর্মকর্তার দায়িত্বহীনতার কারণে আমরা আমাদের তথ্য সংগ্রহ করা হয়নি। তাদের কারণে আজ আমাদেরকে এতো হয়রানীর শিকার হতে হচ্ছে। অনেকে বাহিরের কম্পিউটারে টাকা দিয়ে ভোটার তালিকায় তথ্য প্রদান করেছে। তথ্য সংগ্রহকারীদের সাথে আমরা যোগাযোগ করেছি। তারা বলেছেন সবার বাড়ী বাড়ী যাওয়া হয়েছে। কিন্তু ফরম না থাকায় তথ্য সংগ্রহ করা হয়নি। 

অভিভাবক শহিদুল ইসলাম, শ্যামলী বেগম ও তনুশ্রী সরকার বলেন, র্নির্বাচন কর্মকর্তার দায়িত্বহীনতার কারণে অনেকে এখন ফরম পূরণ করতে পারেনি। ফরম না থাকলে তার উচিৎ ছিল উর্ধ্বতন কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করে ফরমের ব্যবস্থা করা। তার এই দায়িত্বহীনতার কারণে অনেককে বাধ্য হয়ে টাকা দিয়ে কম্পিউটারের দোকানে গিয়ে ফরম পূরণ করতে হচ্ছে। কম্পিউটার দোকান থেকে একটি ফরম বের করতে ১০০ থেকে ১৫০ টাকা পর্যন্ত লাগে। যা অনেকে জন্য কষ্টকর।

পৌরএলাকার উত্তর সুজাপুর গ্রামের তথ্য সংগ্রহকারী সহকারী শিক্ষক কামরুজ্জামান বলেন, আমাদেরকে যে কয়টি ফরম নির্বাচন অফিস থেকে দেয়া হয়েছে তা নিয়ে বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করেছি। 

ফরম শেষ হওয়ার পর নির্বাচন কর্মকর্তার সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ফরম নাই আমাদের। যারা বাদ পড়েছে তাদেরকে পৌরসভায় ছবি তোলার দিনে আসতে বলবেন। সেখানেই ফরম দিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হবে।

পৌরএলাকার ১ থেকে ৫ নং ওয়ার্ডের সুপারভাইজার বলেন, আমার অধিনে যারা তথ্য সংগ্রহ করেছে তারা ঠিক মতোই দায়িত্ব পালন করেছে। কিন্তু ফরম না থাকার কারণে কোথাও কোথাও বাদ পড়েছে শুনেছি।

ফুলবাড়ী পৌর মেয়র মাহমুদ আলম লিটন বলেন, আমি জানতে পেরেছি অনেকের বাড়ী বাড়ী গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হয়নি। বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসারকে জানালেও তিনি ফরম সরবরাহ করতে পারেনি। 

বিষয়টি নিয়ে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ওয়াজেদ আলী বলেন, ফরম সংকট হয়েছে, জেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যলয় থেকে ফরম সরবরাহ না করায়, নতুন ভোটারদের হাতে ফরম দেয়া সম্ভব হচ্ছেনা।

দিনাজপুর জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা শাহিনুর ইসলাম প্রামানিক এমন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমাদের কাছে যথেষ্ট ফরম রয়েছে, চাহিদা অনুযায়ী প্রতিটি উপজেলা নির্বাচন কার্যলয়ে ফরম সরবরাহ করা হচ্ছে। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রিয়াজ উদ্দিন জানান, এ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের একটি অভিযোগ পেয়েছি, বিষয়টি নিয়ে জেলা নির্বাচন অফিসারের সাথে কথা বলেছি। তিনি জানিয়েছেন যারা বাদ পড়েছে তাদেরকে নির্বাচন অফিসে যোগাযোগ করার জন্য বলেছেন।