ঢাকা রোববার, ২৩ জানুয়ারি ২০২২

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

আইভী-তৈমুরের শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় জমজমাট নাসিক

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ১২:৩৪, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

আপডেট: ১২:৩৪, ১৪ জানুয়ারি ২০২২

আইভী-তৈমুরের শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় জমজমাট নাসিক

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা শেষ হচ্ছে আজ শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) মধ্যরাতে। বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) দিনভর গণসংযোগে ব্যস্ত সময় কাটান হেভিওয়েট দুই প্রার্থী সেলিনা হায়াৎ আইভী ও খন্দকার তৈমুর আলম। আজও সকাল থেকে শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় ব্যস্ত জয়ের আশাবাদী দুই প্রার্থী। তারা বিভিন্নভাবে ভোটারদের কাছে নগরী নিয়ে নিজেদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তুলে ধরছেন। চাইছেন নির্বাচনে জিতে নগরবাসীর সেবা করার সুযোগ।  

এই দুই প্রার্থীর প্রচারে অংশ নিচ্ছেন অসংখ্য মানুষ। তাদের একজন সোনিয়া জানান, নগরীতে এখন নির্বাচনের যে আমেজ তা যেন ঈদের আগের দিনের চাঁদরাতের মতো। সবাই স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রচারণা করছেন, তেমন দাঙ্গা-হাঙ্গামার খবর নেই। সব দেখেশুনে ভালো লাগছে। 

আরেক প্রচারকারী বলেন, প্রার্থীরা আসছেন, দোয়া চাচ্ছেন, ভালো লাগছে। তিনি বলেন, তারা আমাদের যে কথা দিয়েছেন আশা করি সেটি তারা রাখবেন।

আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেলিনা হায়াত আইভী শুক্রবার সকালে নারায়ণগঞ্জ মহানগরীর ফতুল্লার দেওভোগ এলাকা থেকে প্রচারণা শুরু করেন। কখনো রিকশা, কখনো হেঁটে ভোট চান ভোটারদের কাছে। এ সময় নেতাকর্মীরা ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান দুই দফায় নির্বাচিত এই মেয়রকে।

অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও সংঘর্ষহীন শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের আশাবাদ ব্যক্ত করে সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেন, ভোটে সহিংসতা হলে আমারই ক্ষতি হবে। আমার ভোটাররা আসতে পারবেন না। কিন্তু আমি যদি বলি, আমার প্রতিপক্ষরা তাই চাচ্ছে (সহিংসতা)। আমার যেসব জায়গায় ভোট ব্যাংক আছে, বেশি জমজমাট, হয়তো কেউ শত্রুতা করে বাধা দিতে আসতে পারে। আমি প্রশাসনের কাছে বরাবরই বলে আসছি,  ভোটের পরিবেশ যেন পরিচ্ছন্ন থাকে। আমার নারী ভোটাররা যেন আসতে পারেন। আমি জানি এ ভোটগুলো আমার। তিনি আরো বলেন, আমি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী।

প্রতিদ্বন্দ্বী মেয়র প্রার্থী তৈমুর আলম ভোটে সহিংসতা-সংঘাতের আশঙ্কার কথা বলেছেন - এ প্রসঙ্গে আইভী বলেন, আমি সবসময় শান্তির পক্ষে। আমি মনে করি না যে, সে রকম কিছু হবে আমার তরফ থেকে। আমার ওই ধরনের কোনো বাহিনী নেই। আমি কোনো দিন সহিংসতা করিওনি। 

তিনি আরো বলেন, তৈমুর আলম খন্দকার ছোটবেলা থেকেই আমার কাকা। আমাদের বাড়িতে উনি অজস্রবার এসেছেন। আমার বাবার কর্মী ছিলেন তিনি। সুতরাং উনার সঙ্গে আমার সম্পর্কটা, বন্ডিংটা অনেক আগের। আজ ভোটের মাঠে আমরা হয়তো প্রতিদ্বন্দ্বী।

এদিকে নগরীতে সমানতালে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকার। তিনিও জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী। তবে তার অভিযোগ, তল্লাশির নামে তার নেতাকর্মীদের হয়রানি করছে পুলিশ। সরকারদলীয় প্রার্থীকে জেতাতে প্রশাসন কাজ করছে। 

শুক্রবার সকালে নারায়ণগঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে এই মেয়র প্রার্থী আরো অভিযোগ করেন, পোলিং এজেন্টদের গুরুত্বপূর্ণ কাগজ উধাও হয়ে গেছে। 

তিনি বলেন, সিদ্ধিরগঞ্জে আমার নির্বাচনী সমন্বয়ক জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ২০২১ সালের মার্চ মাসের দায়ের হওয়া মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে রবির অফিস থেকে পোলিং এজেন্টদের গুরুত্বপূর্ণ কাগজ উধাও হয়ে গেছে।  

তৈমুর আরো অভিযোগ করেন, আমরা ১৫ বছর ধরেই নিজ বাড়িতে নিরাপদে থাকতে পারছি না। নানাভাবে আমাদের হয়রানি করা হচ্ছে।    

আগামী ১৬ জানুয়ারি নাসিক নির্বাচনে মোট ভোটার ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৬১ জন। সবাই অধীর অপেক্ষায় আছে এ নির্বাচনে জিতে কে মেয়রের আসনে বসেন তা দেখার জন্য।