ঢাকা শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

কঠোর লকডাউনেই ঢাবিতে ছাত্রনেতার জন্মদিন উদযাপন

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ১৪:৪৬, ৭ জুলাই ২০২১

কঠোর লকডাউনেই ঢাবিতে ছাত্রনেতার জন্মদিন উদযাপন

ভয়ঙ্কর করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে মরিয়া সরকার। বাধ্য হয়ে এই ভাইরাসের বিস্তার রোধে ১ জুলাই থেকে দেশব্যাপী কঠোর লকডাউন দিয়েছে সরকার, যার সময়সীমা ১৪ জুলাই পর্যন্ত। মানুষকে বিধিনিষেধ মানাতে মরিয়া প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, সঙ্গে সেনাবাহিনী ও বিজিবিও।

এত যখন সতর্কতা চারদিকে তখন তারই মধ্যেই সব বিধিনিষেধ ভেঙে ধুমধাম করে এক ছাত্রনেতার জন্মদিন পালন করা হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। হয়েছে কেক কাটা, টিএসসিতে ফুটেছে আতশবাজি। এই নেতা কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাহিত্যবিষয়ক উপসম্পাদক এস এম রিয়াদ হাসান।

মঙ্গলবার (৬ জুলাই) রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের অতিথি কক্ষে এস এম রিয়াদ হাসানের জন্মদিন পালন করা হয়। ছাত্রলীগ সভাপতির ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত এই নেতা কিছুদিন আগে পর্যন্ত নিয়ম ভেঙে হলে থেকেছেন। গত ২৬ জুন জহুরুল হক হলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশের যৌথ অভিযানে তিনি পালিয়ে যান।

জন্মদিন পালন উপলক্ষে ক্যাম্পাসে জড়ো হন ছাত্রলীগের একদল নেতাকর্মী। এরপর শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের অতিথি কক্ষে ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খানের উপস্থিতিতে কাটা হয় কেন্দ্রীয় নেতা এস এম রিয়াদ হাসানের জন্মদিনের কেক। এরপর শখানেক নেতাকর্মীকে সঙ্গে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় জন্মদিনের আরেকটি কেক কাটেন রিয়াদ হাসান। রিয়াদের জন্মদিন উপলক্ষে সেখানে আতশবাজি ফোটানো হয়। রিয়াদ কয়েকজন নেতাকর্মীর সঙ্গে ফুলেল শুভেচ্ছাও বিনিময় করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে এস এম রিয়াদ হাসান ক্যাম্পাসে জন্মদিন উদ্‌যাপনের বিষয়টি স্বীকার করেন। তিনি বলেন, গতকাল সন্ধ্যার পর ক্যাম্পাসে প্রচণ্ড বৃষ্টি হচ্ছিল। মূলত বৃষ্টির কারণে তারা হলের অতিথি কক্ষে গিয়ে বসেন। হলের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কাছ থেকে অনুমতি নিয়েই তারা অতিথি কক্ষে ঢুকেছিলেন। তবে এ বিষয়ে জানতে ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খানের মোবাইল ফোনে একাধিক কল করা হলেও তিনি ফোন ধরেননি।

জহুরুল হক হলের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. আজিজুর রহমান বলেন, গতকাল সন্ধ্যায় বৃষ্টির সময় ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খানসহ ছয়জন হলের অতিথি কক্ষে এসে বসেন। ছাত্রলীগ সভাপতি তার এক কর্মীর জন্মদিন উপলক্ষে অতিথি কক্ষে শুধু কেক কাটা ও ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য ১৫ থেকে ২০ মিনিট অবস্থান করেন। পরে বৃষ্টি শেষ হওয়ামাত্র তারা হল থেকে টিএসসিতে চলে যান। সেখানে কিছুটা জনসমাগম হয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, ‘টিএসসি ও শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি দেখতে বলা হয়েছে। ক্যাম্পাস এলাকায় করোনাকালীন বিধিনিষেধ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে আমরা সবার সহযোগিতা চাই।