ঢাকা বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

Star Sangbad || স্টার সংবাদ

দুই শিক্ষার্থীকে প্রহারের প্রতিবাদে ঢাবিতে মশাল মিছিল

স্টার সংবাদ

প্রকাশিত: ২১:১৯, ২৪ জানুয়ারি ২০২৩

দুই শিক্ষার্থীকে প্রহারের প্রতিবাদে ঢাবিতে মশাল মিছিল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিজয় একাত্তর হলে দুই শিক্ষার্থীকে শিবির সন্দেহে নির্যাতনের প্রতিবাদে মশাল মিছিল করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের আয়োজনে ঢাবির রাজু ভাস্কর্য থেকে এ মশাল মিছিল শুরু হয়। পরে মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন জায়গা ঘুরে ফের রাজু ভাস্কর্যে এসে শেষ হয়।

মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বক্তারা দ্রুতই নির্যাতনকারীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসার দাবি জানান। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে অভিযুক্তদের বিচারের আওতায় আনা না হলে শাহবাগ অবরোধ করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন তারা।

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আদীব বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় হলো মুক্তবুদ্ধি ও গণতান্ত্রিক চর্চার একটি জায়গা। এখানে যেকোনো রাজনৈতিক দলের ছাত্র সংগঠন তাদের কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে থাকে। কিন্তু ক্ষমতাসীন সংগঠনগুলো দল ও মত দমন করে থাকে। শুধু তাই নয়, তাদের হলে থাকতে দেয়া হয় না। আমরা দেখেছি, মাত্র ৪১ শতাংশ শিক্ষার্থী হল সুবিধা পেয়ে থাকেন। সেই ৪১ শতাংশ যে বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্মম নির্যাতনের মধ্য দিয়ে চলে তা প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীদের ফল বিশ্লেষণ করলেই বোঝা যায়।

তিনি আরো বলেন, ঢাবির হলগুলোতে শিক্ষার্থী নির্যাতন, আবু গারিব কারাগারের কথা মনে করিয়ে দেয়। হলগুলোতে যারা দায়িত্বে থাকেন, তারা বেতনও নিয়ে থাকেন। অথচ তারা শুধু ১৬ ডিসেম্বর আর ২৬ মার্চে হলগুলোতে যান। শিক্ষার্থীদের সুবিধা-অসুবিধার সময় তাদের দেখা যায় না। আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের জন্য সুষ্ঠু পরিবেশ নিশ্চিতের আহ্বান জানাই।

বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা বলেন, বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজয় একাত্তর হলের দুই ছাত্রকে নির্যাতন করা হয়েছে। এভাবে প্রতিনিয়ত প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে, গণরুম-গেস্টরুমে শত শত শিক্ষার্থীকে নির্যাতন ও নিপীড়ন করা হচ্ছে। কখনও কখনও কিছু ঘটনা গণমাধ্যমে উঠে আসে, আমরা সেগুলোর প্রতিবাদ করি। আমরা স্পষ্টভাবে বলতে চাই, এই বাংলাদেশে প্রতিটি নাগরিকের প্রতিবাদ করার অধিকার রয়েছে, সভা-সমাবেশ করার অধিকার রয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২২ জানুয়ারি বিজয় একাত্তর হলে শিবির সন্দেহে দুই শিক্ষার্থীকে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ ওঠে। এতে রাত ১১টা থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত কয়েক ধাপে তাদের নির্যাতনের ঘটনা ঘটে। পরে সকালে হল প্রভোস্ট উভয় পক্ষের কথা শোনেন এবং ভুক্তভোগীকে প্রক্টরিয়াল টিমের হাতে তুলে দেন।